শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:২২

বাঁশের সেতু দিয়ে পারাপার তিন উপজেলার মানুষের

নওগাঁ প্রতিনিধি

বাঁশের সেতু দিয়ে পারাপার তিন উপজেলার মানুষের

মান্দা উপজেলার কালিকাপুর বাজারে আত্রাই নদের উপর নির্মিত বাঁশের সাঁকো দিয়ে মান্দা, মহাদেবপুর ও নিয়ামতপুর উপজেলার মানুষ পারাপার হচ্ছেন। মান্দা উপজেলার সদর ইউনিয়নের কালিকাপুর বাজার পয়েন্টে অবস্থান বাঁশের সাঁকোটির।

আক্তারুজ্জামান বুলবুল নামে এক ব্যক্তি খেয়াঘাট এক লাখ ১০ হাজার টাকায় ইজারা নিয়ে ৮০ হাজার টাকা খরচ করে সাঁকোটি তৈরি করে চাঁদা আদায় করছেন।

জানা যায়, আত্রাই নদীর পূর্ব পাশে ১৫টি আর পশ্চিম পাশে ১৮টি গ্রাম রয়েছে। এ সব এলাকার প্রায় ২৫-৩০ হাজার মানুষ তাদের উৎপাদিত ফসল নিয়ে বাঁশের ওই সাঁকোর উপর দিয়ে চলাচল করে।

ইজারাদার আক্তারুজ্জামান বুলবুল বলেন, এ ঘাট দিয়ে বর্ষায় পারাপারের জন্য কিছু দিন খেয়া নৌকা থাকে। শুষ্ক মৌসুমে পানি কমে হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত হয়। তখন নদীতে নৌকা চালানো সম্ভব না হওয়ায় চলাচলের জন্য সাঁকোটি ব্যবহার করে এলাকাবাসী। সাঁকো নির্মাণে প্রায় এক লাখ টাকা খরচ হয়। খরচের টাকা তুলতে জনপ্রতি ৫ এবং প্রতিটি মোটরসাইকেলের জন্য ১০ টাকা করে নিতে হচ্ছে।

স্থানীয় সফাপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাসেম বলেন, বর্ষায় খেয়ানৌকা আর শুকনায় সময় বাঁশের সেতুর ওপর নির্ভর করে চলছে গ্রামবাসীর জীবনযাত্রা। তিনি বলেন, এলাকার মানুষের ভোগান্তি লাঘবের জন্য আত্রাই নদে একটি সেতু নির্মাণের জন্য স্থানীয়রা দীর্ঘদিন ধরে জনপ্রতিনিধি কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন। বিভিন্ন সময় মাপজোক হলেও তা বাস্তবায়নে কোনো উদ্যোগ নেই। উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) শাহ মো. শহিদুল ইসলাম জানান, কালিকাপুর ঘাটে পাকা সেতু নির্মাণের কোন কর্মপরিকল্পনা এখনো তারা পাননি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর