শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জুলাই, ২০২১ ০১:২৮

ডাকাতির পেছনে বিনিয়োগ করতেন তিনি

কুমিল্লা প্রতিনিধি

Google News

কুমিল্লায় ডাকাতির ঘটনায় পাঁচ ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। যার মধ্যে একজন ডাকাতির কাজে অর্থ বিনিয়োগ করতেন। ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত গাড়ি, যন্ত্রপাতি সরবরাহ ও মালামাল ক্রয় করতেন। গতকাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম. তানভীর আহমেদ। গতকাল ডাকাতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়। পরে কুমিল্লা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রোকেয়া আক্তার তাদের কারাগারে প্রেরণ করেন। জানা যায়, গত ৭ জুলাই রাতে দেবিদ্বার উপজেলার কাবিলপুর গ্রামের বাসিন্দা কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক রেজাউল করিমের বাড়িতে ডাকাতি হয়। এ সময় ডাকাত দল নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও একাধিক মোবাইল ফোনসেট লুটে নেয়। এ ঘটনায় পরদিন ডা. রেজাউল করিম বাদী হয়ে দেবিদ্বার থানায় মামলা করেন। পরে দেবিদ্বার, চান্দিনা থানা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এলআইসি টিম অভিযান শুরু করে। ঘটনার ১২ দিন পর গত মঙ্গলবার রাতে ওই ডাকাত দলের চার সদস্যকে গ্রেফতার করে। তারা হলেন- দেবিদ্বার উপজেলার মো. ফয়েজ, একই উপজেলার মো. রফিক, ইন্দ্রাবতী গ্রামের মো. সোহেল, ছোটনা গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেন। পরে গ্রেফতার ডাকাতদের তথ্য অনুসারে ডাকাতির পেছনে বিনিয়োগকারী রিপনচন্দ্র সাহাকে গ্রেফতার করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর