শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ জুলাই, ২০২০ ২১:৫৫

বগুড়া-১ উপ নির্বাচন; বিএনপি সরে দাঁড়ালেও ভোটাররা প্রস্তুত!

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া:

বগুড়া-১ উপ নির্বাচন; বিএনপি সরে দাঁড়ালেও ভোটাররা প্রস্তুত!

বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে আগামী ১৪ জুলাই উপ-নির্বাচন। ওই নির্বাচনের ৮দিন আগে বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণায় প্রভাব পড়েনি ভোটারদের মধ্যে। এলাকার উন্নয়ন ও উৎপাদনের ধারা অব্যাহত রাখতে ওই এলাকার ভোটাররা এখন ভোট দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। এবারের নির্বাচনে আঞ্চলিকতা সবচেয়ে বেশি কাজ করবে। সেক্ষেত্রে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সাথে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসার সম্ভাবনা রয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর। 

এক সময় বগুড়া বিএনপির দুর্গো বলে পরিচিত ছিল। সময়ের ব্যবধানে এবং প্রয়াত সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের একটানা ক্ষমতায় থাকাকালীন এলাকায় শত শত কোটি টাকার উন্নয়নমূলক কাজ করায় বিএনপির দুর্গো এখন আওয়ামীলীগের দুর্গে পরিনত হয়েছে। ওই আসনে উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণায় ভোটারদের মধ্যে তেমন কোন প্রভাব পড়েনি। এর মূল কারণ হিসেবে ভোটাররা এলাকার উন্নয়নটা প্রাধান্য দিচ্ছে। 

এলাকার উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে। ওই এলাকার ভোটাররা আরও জানান, যমুনা ও বাঙালি নদী বেষ্টিত সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা উপজেলা। ওই এলাকার প্রায় ৮৫ ভাগ মানুষ সরাসরি কৃষি কাজের সাথে জড়িত। বছরের বেশির ভাগ সময় প্রকৃতির সাথে লড়াই সংগ্রাম করে তাদের টিকে থাকতে হয়। তাই তারা আসন্ন উপ-নির্বাচনে প্রার্থী নির্বাচনে ভুল করতে নারাজ। 

২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুল মান্নানকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। গত ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওই আসনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. শোকরানাকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল মান্নান। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আব্দুল মান্নান নির্বাচিত হন। 

এদিকে বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোয় এখন মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসার সম্ভাবনা রয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী। পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারে জাতীয় পার্টির মনোনিত প্রার্থী।   

২০২০ সালের ১৮ জানুয়ারী সাংসদ আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। দেশে করোনা সংক্রমন দুর্বিপাক জনিত কারণে ২৯ মার্চ নির্বাচন স্থগিত হয়। সংবিধান অনুযায়ী বগুড়া-১ আসনের স্থগিতকৃত ওই নির্বাচন ১৫ জুলাই এর মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানে বাধ্যকতা থাকায় নির্বাচন কমিশন ১৪ জুলাই ওই আসনের উপ-নির্বাচনের দিন পুনরায় ধার্য করেন। 

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আশরাফ হোসেন ও সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রাসেল মিয়া জানান, উপ-নির্বাচনে বন্যার কোন প্রভাব পড়বে না। সোনাতলায় দুইটি কেন্দ্রে বন্যার পানি উঠলেও তা ইতিমধ্যেই নেমে যেতে শুরু করেছে। অপরদিকে সারিয়াকান্দির কয়েকটি কেন্দ্রে পানি প্রবেশ করলেও পার্শ্ববর্তী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বিকল্প ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারে প্রস্তুুতি রাখা হয়েছে। নির্বাচনে ৩ লাখ ৩০ হাজার ৮৯২ জন ভোটার ১২৩ টি কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য