শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ আগস্ট, ২০২০ ০৯:০২

ডাকাতির সময় চিনে ফেলায় মঠবাড়িয়ায় শিশুসহ ৩ জনকে হত্যা

পিরোজপুর প্রতিনিধি

ডাকাতির সময় চিনে ফেলায় মঠবাড়িয়ায় শিশুসহ ৩ জনকে হত্যা

ডাকাতি করতে গিয়েই পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় একই পরিবারের শিশু সন্তানসহ ৩ জনকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার মূল হোতা অলি বিশ্বাসকে গ্রেফতার করার পরে শনিবার (৮ আগস্ট) রাতে মঠবাড়িয়া থানায় প্রেস ব্রিফিং এ তথ্য জানান পিরোজপুরের  পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান।

পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান প্রেস ব্রিফিং এ জানান, উপজেলার ধানীসাফা ইউনিয়নের ধানীসাফা গ্রামের অটোরিকসা চালক আয়নাল হক হাওলাদারের  ঘরে ডাকাতি করার উদ্দেশ্য নিয়ে আসামিরা সেদিন  প্রবেশ করেছিল। কিন্তু গৃহকর্তা আয়নাল হক তাদের চিনে ফেলায় নিজেদের বাঁচাতে আয়নালকে স্ত্রী ও শিশু সন্তানসহ হত্যা করে  লাশ ঝুলিয়ে রাখে আসামিরা । এ হত্যাকাণ্ডে আরও ২ জন জড়িত আছে। তাদের নাম তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা হলো না। গ্রেফতারকৃত আসামিরা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। 

প্রসঙ্গত, গত ৩০ জুলাই সকালে মঠবাড়িয়া উপজেলার ধানীসাফা ইউনিয়নের ধানীসাফা গ্রামের মৃত রতন হাওলাদারের পুত্র অটোচালক আয়নাল হক হাওলাদার (৩৫), আয়নাল হক হাওলাদারের স্ত্রী খুকুমনি বেগম (২৫) ও তাদের সন্তান আসফিয়া ইসলাম (৩) এর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশ উদ্ধারের পরপরই পুলিশ এটাকে একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে তদন্ত শুরু করে। 

এ ঘটনায় পরের দিন আয়নালের শ্বশুর বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করে । এরপর গত শুক্রবার (৭ আগস্ট) দিবাগত রাত রাত ১ টার দিকে মঠবাড়িয়ার সাফা থেকে প্রথমে অলী বিশ্বাসকে গ্রেফতার করে তার তথ্য অনুযায়ী রাকিব বেপারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ । এসময় তাদের কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়।

পিরোজপুর জেলা গোয়েন্দা শাখার উপ- পরিদর্শক মোঃ দেলোয়ার হোসেন জানান, ৩ খুনের ঘটনায়  গ্রেফতার হওয়া অলি বিশ্বাসের আপন এক ভাই একটি হত্যা মামলা এখন যাবৎজীবন কারাভোগ করছে।

 

বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর