শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ আগস্ট, ২০২০ ১৯:৩২

কলেজছাত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় তিনজন গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

কলেজছাত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় তিনজন গ্রেফতার
প্রতীকী ছবি

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় কলেজছাত্রী সাবিনা খাতুনকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে করা মামলার এজাহারভুক্ত একই পরিবারের তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

গ্রেফতাররা হলেন, উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নের চকডাকাতিয়া গ্রামের ঈমান আলীর ছেলে আব্দুল হাই (৪৫), তার ছেলে হাসান আলী (১৯) ও মেয়ে আরিফা খাতুন (২৪)। শনিবার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সিরাজগঞ্জ শহরে এক আত্মীয়র বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। রোববার দুপুর ১টার দিকে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে তাদের বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চকডাকাতিয়া গ্রামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে হাবিবুর রহমানের (২১) সাথে তার চাচাতো বোন সাবিনা খাতুনের (১৭) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সাবিনা খাতুন একই গ্রামের আব্দুস ছামাদের মেয়ে এবং সিরাজগঞ্জের কুড়িপাড়া মহাবিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। বিয়ের কথা বলে ২ জুলাই রাতে সাবিনাকে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান প্রেমিক হাবিবুর রহমান। সেখানে ঘরের ভেতর নির্জনে অভিসার যাপন করেন প্রেমিক-প্রেমিকা।

একপর্যায়ে হাবিবুরকে বিয়ের চাপ দেন সাবিনা। কিন্ত সাবিনাকে বিয়ে করতে রাজি হননি হাবিবুর। ফলে সাবিনা বিয়ের দাবিতে হাবিবুরের বাড়িতে অবস্থান নেন। পরের দিন ৩ জুলাই সকালে হাবিবুর ও তার পরিবারের লোকজন সাবিনাকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। সম্ভ্রম হারিয়ে সাবিনা বাড়িতে ফিরে ওই দিনই সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিজ ঘরের ভেতর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। 

এ ঘটনায় নিহত সাবিনা খাতুনের বাবা আব্দুস ছামাদ বাদী হয়ে ৪ এপ্রিল হাবিবুর রহমান ও তার মা-বাবা, ভাই-বোনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। 

বগুড়ার ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য