শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:১৯
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৮:২১
প্রিন্ট করুন printer

বাগেরহাটে যুবলীগ নেতার হাতে আওয়ামী লীগ নেতা প্রহৃত

বাগেরহাট প্রতিনিধি:

বাগেরহাটে যুবলীগ নেতার হাতে আওয়ামী লীগ নেতা প্রহৃত

বাগেরহাটের শরণখোলায় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান মিলনের হাতে বাবুল খান মারধরের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ। বাবুল রায়েন্দা ইউনিয়নের ৪ নম্বার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক। এ ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার দুপুরে রায়েন্দা ইউনিয়নের ৪ নম্বার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শরণখোলা প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার রাতে মারধরে আহত আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল খান বর্তমানে শরণখোলা উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

মানববন্ধনে শরণখোলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন শান্ত, ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান পারভেজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন মুক্তা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহম্মেদ মুক্তা, জালাল আহম্মেদ রুমী ও সরোয়ার আহম্মেদ তালুকদারসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

মানববন্ধনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলেন, রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের ভবন নির্মাণের জন্য মধ্যস্থতা করে জমি ক্রয় করিয়ে দেন খাদা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক বাবুল খান। কিন্ত মালিক পক্ষের মধ্যে বিরোধের কারণে ওই জমি বুঝে না পাওয়ায় বাবুলের উপর ক্ষিপ্ত হন রায়েন্দা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান মিলন। বৃহস্পতিবার রাতে মিলন চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল খানকে রায়েন্দা বাজার শের-এ বাংলা রোডে ডেকে জমি বুঝে না দেওয়ার কারণ জানতে চেয়ে তাকে মারধর করে আহত করেন। 

শরণখোলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন মুক্ত বলেন, দলীয় প্রতীক নৌকা পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আসাদুজ্জামান মিলন ক্ষমতার দাপটে এখন আওয়ামী লীগ কর্মীকে মারধর করেছেন। দলীয় প্রতিক নৌকা না পেলে আগামীতে তার জামানতও বাঁচবেনা। আওয়ামী লীগ নেকাকে মারপিটের ঘটনার দলের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা,  প্রতিবাদ ও বিচারের দাবি জানাই।

তবে চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধরের ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আমার প্রতিপক্ষ আজমল হোসেন মুক্তা রাজনৈতিক ভাবে পরাজিত হয়ে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় অংশ হিসেবে লোকজন নিয়ে মানববন্ধন করিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান জানান, রায়েন্দা ইউনিয়নের ৪ নম্বার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক বাবুল খানকে মারপিটের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

                                        
বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য