২৯ আগস্ট, ২০২১ ২১:৫১

স্কুলের ভবনটি ছাড়া সবকিছুই নিয়ে গেছে চোরের দল!

কুমিল্লা প্রতিনিধি

স্কুলের ভবনটি ছাড়া সবকিছুই নিয়ে গেছে চোরের দল!

ছবি মতোই সুন্দর স্কুল। স্কুলের ভবটিন ছাড়া প্রায় সবই নিয়ে গেছে চোরের দল! এমন ঘটনা ঘটেছে কুমিল্লার বরুড়ার পৌরসভা এলাকার একটি স্কুলে। এটি একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুল। যার নাম ‘লিটল অ্যাঞ্জেল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’।  স্কুলটি পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত। চুরি থেকে বাদ যায়নি বই-খাতা, কলম, ঝাড়ু, চক-ডাস্টার, কলমদানিও। 

সূত্র জানায়, এখন পর্যন্ত এই স্কুলে বহুবার চুরির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু এবার বড় একটি ঘটনার সম্মুখীন হয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এর আগেও এই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে স্কুলের লক্ষাধিক টাকার বেশি জিনিসপত্র চুরি হয়। যার মধ্যে ছিল স্কুলের প্রয়োজনীয় শিক্ষা সামগ্রী, ল্যাপটপ, প্রিন্টার, ডিজিটাল ক্লাসের অ্যান্ড্রয়েড টিভি এবং ইলেক্ট্রনিকস সামগ্রী। 

শেষ ঘটনাটি ঘটে ২৭ আগস্ট রাতে। যেখানে স্কুলের প্রধান গেটের তালা ভেঙে চোরেরা ভেতরে প্রবেশ করে। পরে অফিস রুম, ক্লাস রুমের তালা ভেঙে ভেতরে থাকা শ্রেণিকক্ষের ডিজিটাল ক্লাসের ব্যবহারের টিভি এবং মূল্যবান ইলেক্ট্রনিকস সামগ্রী নিয়ে যায়। 

স্কুলের প্রধান শিক্ষক সায়মা সুলতানা বলেন, আমাদের ব্যবহারের বই-খাতা, কলম, ঝাড়ু, চক-ডাস্টার, কলমদানিটাও ছাড় দেয়নি। এক কথায় আমরা ছয় বছরে যা কিছু অর্জন করেছি, সবই চোরে নিয়ে গেছে। 

স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও স্কুল কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিন পাটওয়ারী বলেন, ২০১৫ সালে স্কুল প্রতিষ্ঠার পর থেকে এমন ঘটনার সম্মুখীন হইনি। কিন্তু এখন লকডাউনে স্কুল বেশিরভাগ সময় খালিই থাকে। এই সুবিধাটাই নিয়েছে চোরের দল। আমরা এর আগেও জেনারেল ডায়েরি করেছি। এবার আবার থানায় জিডি করেছি। কিন্তু কোন সুফল পাচ্ছি না।

স্কুল কমিটির সভাপতি ও নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা শিক্ষা অফিসার মিজানুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, কিছু বলার নেই। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এভাবে চুরির ঘটনা আসলেই দু:খজনক। আবার সবকিছু নতুন করে কিনতে হবে। 

বরুড়া পৌরসভার মেয়র বক্তার হোসেন বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার কারণে এলাকার তরুণরা মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে। মাদকের টাকা দিতে তারা নানা অপরাধে জড়াচ্ছে। তারই একটি ঘটনা বিদ্যালয়ে চুরি। অপরাধীদের ধরতে সহায়তা করা হবে।

বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইকবাল বাহার বলেন, ঘটনাটি দু:খজনক। অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর