৯ অক্টোবর, ২০২১ ২০:৫৭

সাংবাদিক বিপুল নিহতের পাঁচ বছর পর হত্যা মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

সাংবাদিক বিপুল নিহতের পাঁচ বছর পর হত্যা মামলা

বগুড়ার নন্দীগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিক শফিউল আলম বিপুল নিহতের পাঁচ বছর পর হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিপুলের ঘনিষ্ঠ সহকর্মী আমিনুল ইসলাম জুয়েলসহ ৮ জনকে আসামি করে বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন সাংবাদিক বিপুলের ছোট ভাই রফিকুল ইসলাম। সে উপজেলার বর্ষণ গ্রামের মোকছেদ আলীর ছেলে। আদালতের আদেশে গত ২৯ সেপ্টেম্বর নন্দীগ্রাম থানার মামলা নং ১৮ রেকর্ড করা হয়। 

তথ্যমতে, ২০১৬ সালের ১৮ জুন সন্ধ্যায় উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের বর্ষণ গ্রামের নিজ বাড়িতে ফেরার পথে কালিশ-বীজরুল রাস্তার পুনাইল সীমানায় গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন সাংবাদিক বিপুল। সেসময় প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিববারের সদস্যরা জানান, রাস্তায় চলাচলরত যান চালক ও যাত্রীরা আহত বিপুলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক বিপুলকে মৃত ঘোষণা করেন। বিপুল দৈনিক ইত্তেফাকের সংবাদদাতা ছিলেন। সেসময় পরিবারের পক্ষ থেকে সন্দেহ বা অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত এবং ইউডি মামলা ছাড়াই সাংবাদিক বিপুলের লাশ দাফন সম্পন্ন করা হয়। সড়ক দুর্ঘটনা উল্লেখ করে মৃত্যু সনদ নিবন্ধন করেছে ভাটগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ। 

নিহতের পাঁচ বছর পর পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ এনে বগুড়ার আদালতে ২০২০ সালের ৬ ডিসেম্বর মামলা দায়ের করেন বিপুলের ছোটভাই রফিকুল ইসলাম। আদালতের আদেশে গত ২৯ সেম্পেম্বর মামলাটি থানায় রেকর্ড করা হয়েছে। সাংবাদিক বিপুলের ঘনিষ্ঠ সহকর্মী আমিনুল ইসলাম জুয়েল মামলার প্রধান আসামি। সে বর্ষণ গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে। অন্য আসামিরা হলেন- মান্নান, মোজাম্মেল, মজিদ, মানিক, খোকন, সাইদুল ও আবু সাইদ। 

মামলার বিবরণে বলা হয়, আসামিদের অপরাধমূলক অবৈধ কর্মকান্ড ও অসামাজিক কার্যকালাপের জন্য নিষেধ করে সাংবাদিক বিপুল। ঘটনার দিন বিকেলে কৌশলে বিপুলের মোটরসাইকেলে উঠেন প্রধান আসামি জুয়েল। নন্দীগ্রাম আসার পথে বরিন্দা পাগরাপাড়া এলাকায় বিপুলকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হয়। 

বগুড়ার নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ জানান, থানায় মামলা রেকর্ড হয়েছে। সত্য-মিথ্যা মামলার তদন্তে বেড়িয়ে আসবে। সাংবাদিক বিপুলের লাশ উত্তোলনের নির্দেশনা দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিযুক্ত হলে যেকোনো দিন লাশ উত্তোলন করা হবে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর