শিরোনাম
৭ জানুয়ারি, ২০২৪ ১৮:০৩

মাদারীপুরে কেন্দ্র দখল-সংঘর্ষের জেরে বাড়িঘর ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরে কেন্দ্র দখল-সংঘর্ষের জেরে বাড়িঘর ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ

মাদারীপুর সদর উপজেলার ঘটকচর এলাকায় একটি নির্বাচনি কেন্দ্র দখলের জেরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০টি বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, লুটপাট ও  অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের প্রায় ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। 

পুলিশ জানায়, বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত দফায় দফায় এ সহিংসতার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে মাদারীপুর-৩ সংসদীয় আসনের সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের ঘটকচর উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুস সোবহান গোলাপের সমর্থক জয়নাল মাতুব্বরের লোকজন ও ঈগল প্রতীকের তাহমিনা বেগমের সমর্থক সাইদুল শরীফের কর্মীদের সঙ্গে ভোটকেন্দ্র দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধে। পরবর্তী পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্য দ্রুত ভোটকেন্দ্রে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ভোটকেন্দ্রের সংঘর্ষের জের ছড়িয়ে পড়ে ঘটকচরের পাশের কাউয়াকুরি গ্রামের ভেতরে। গ্রামের পূর্ব বিরোধের জের হিসেবে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০টি বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের কয়েকটি রান্না ঘর ও খড়ের পালায় আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ, র‌্যাব ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

ক্ষতিগ্রস্ত মাহিনুর বেগম বলেন, ‘আমি ঘটকচরে ভোট দিতে গিয়েছিলাম। বাড়িতে এসে দেখি আমার ঘর ভাঙচুর করেছে। এ সময় ঘরে থাকা ছেলেকে বিদেশ পাঠানোর জন্য রাখা ৪ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। আমাদের রান্না ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।

আরেক ক্ষতিগ্রস্ত সোলেমান হাওলাদার বলেন, ‘আমার মেয়ে জামাইয়ের পাকের ঘর আগুন দিয়ে পোড়াই দিছে। গত বছর আমার মেয়ে জামাই মারা গেছে। এখন কী দিয়ে ঘর উঠামু বুঝতে পারছি না। একেবারেই শুধু শুধু ভোট নিয়ে এই গণ্ডগোল করলো।

এ বিষয়ে মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল হাসান বলেন, ‘ঘটকচর কেন্দ্র থেকে অনেক দূরে কাউয়াকুড়ি গ্রামে পূর্বের গ্রাম্য দলাদলির বিরোধ থেকে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর