Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ জুলাই, ২০১৯ ১১:৫৯
আপডেট : ১৯ জুলাই, ২০১৯ ১৫:১৪

এ ব্যাপারে এসপি মারুফের ব্যাখ্যা বা বক্তব্য কি?

শওগাত আলী সাগর

এ ব্যাপারে এসপি মারুফের ব্যাখ্যা বা বক্তব্য কি?
শওগাত আলী সাগর

বরগুনার মতো ছোট্ট একটি শহরে ০০৭ নামে একটি ‘বিশেষ বাহিনী’ যখন গড়ে ওঠে তখন স্থানীয় পুলিশ কি করেছে? বরগুনার এসপি মারুফেরই বা কি ভূমিকা ছিলো? ’০০৭’ বরগুনায় মানুষের মূর্তিমান আতংকে পরিণত হলো যখন- তখন পুলিশের কি ভূমিকা ছিলো। নয়ন যখন ‘নয়ন বন্ড’ হিসেবে পরিচিতি পেতে শুরু করলো, তখন কি এসপি মারুফের মনে কৌতূহল তৈরি হয়েছিলো? ‘বরগুনায় একটি অপরাধীর সিন্ডিকেট সক্রিয় হয়ে উঠছে’- এমনটি তার কাছে ‘প্রতীয়মান’ হয়নি? হয়ে থাকলে তিনি কি করেছেন এই ব্যাপারে?

বরগুনায় মাদকের ব্যবসা আর মোটরসাইকেল চোরাচালানের একটি রমরমা সিন্ডিকেট আছে। অবৈধ এই ব্যবসার সাথে কোটি কোটি টাকার সম্পৃক্ততা। এসপি মারুফ কিংবা বরগুনার পুলিশ এই চক্রের ব্যাপারে কি অবহিত ছিলেন না? নয়ন বন্ড অনেকবারই পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে ইংরেজী দৈনিক ডেইলি স্টার তাদের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে জানিয়েছে। 

বরগুনার পৌর কাউন্সিলর ফরুক শিকদার জানিয়েছেন, বছর দেড়েক আগে তিনি নিজে নয়নকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছিলেন। একদিন পরই নয়ন পুলিশের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে ওই কাউন্সিলরের বাড়ির আশপাশে ঘুর ঘুর শুরু করে দেয়। একজন জনপ্রতিনিধি যাকে পুলিশে দেয়, বরগুনার পুলিশ তাকে ছেড়ে দিয়েছিলো কেন? কিসের ভিত্তিতে ছেড়ে দিয়েছিলো? এসপি মারুফ কি তার খোঁজ নিয়েছিলেন?

কাউন্সিলর ফারুক শিকদার জানিয়েছেন, একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি তাকে ফোন করে নয়নকে কেন পুলিশে দেয়া হয়েছে সে ব্যাপারে জানতেও চেয়েছেন? বরগুনার সেই প্রভাবশালী ব্যক্তিটি কে যে কী না নয়নের মতো একটি অপরাধীকে পুলিশে দেয়ায় পৌর কাউন্সিলরকে ফোন করে উষ্মা প্রকাশ করে?
 
রিফাত হত্যার পর খবর বেরিয়েছে নয়নের বিরুদ্ধে থানায় কতোগুলি মামলা আছে তার হিসাব নিকাশসহ। এতোগুলো মামলা থাকার পরও নয়নকে গ্রেফতার করা হয়নি কেন? এ ব্যাপারে এসপি মারুফের ব্যাখ্যা বা বক্তব্য কি?

নয়ন, ফরাজী ভাতৃদ্বয় মিলে বরগুনায় যে চাঁদাবাজি, মাদক আর চোরাচালানের রমরমা ব্যবসা শুরু করেছিলো, এসপি মারুফ বা বরগুনার পুলিশ সেটি দমনের কি কি চেষ্টা করেছিলো? ছোট্ট শহর বরগুনা যে ভয়াবহ অপরাধের শহরে পরিণত হয়েছে তার দায় ভার কি বরুগুনার পুলিশ এড়াতে পারে?

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

 


আপনার মন্তব্য