১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৮:৫৬

একটি সেলফির গল্পকথা

জাহারা মিতু

একটি সেলফির গল্পকথা

জাহারা মিতু। ছবি: ভূঁইয়া সজীব (মিতুর ফেসবুক থেকে নেওয়া)

গতকালকের কথা, একটি ৯৯৯ এর গল্পকথা। এক ছোটভাই আমার শ্যুটে এসে হাজির। বহু বছর আমার সাক্ষাতের অপেক্ষায় ছিলো। তার এলাকায় শ্যুট থাকায় বললাম চলে আসো। কিছুক্ষণ পর বললাম, ‘ভাই আজ তাহলে যাও, শ্যুটে যাই, পরে আবার দেখা হবে।’ 

ছেলে অবদার করে বললো, ‘আপু আপনার কাছে আসলাম আর একটা সেলফি তুলবো না তাকি হয়? আমার এক্স-গার্লফ্রেন্ডকে চ্যালেঞ্জ করেছিলাম, জীবনে একবার হলেও আপনি আমাকে দেখা দিবেন। ওকে ইনবক্সে পাঠায় বলবো, ‘নে দেখ’, ওই ছবি দেখে যদি আবার ব্যাক করে...।’

আমি ওর কথা শুনে হেসে ফেললাম। কথা বাড়ানোর সময় নেই বললাম, ‘মোবাইল বের করো। একটু তাড়া আছে আমার।’ ছেলে তার মোবাইল খোঁজা শুরু করলো। প্যান্ট-শার্ট সবকিছুর পকেট খোঁজা শেষ। এই অবস্থা দেখে বললাম, ‘আচ্ছা আমি ফোন দিচ্ছি। দেখো রিংটন বাজে কিনা।’ দিলাম ফোন। মোবাইলটা আমার সামনেই টেবিলে রাখা। হয়তো এসেই কোনো এক ফাঁকে রেখেছে। কথা সেটা না। কথা হলো আমার নম্বর তার মোবাইলে ৯৯৯ লিখে সেভ করা। 

বললাম, ‘একি!! আমার নাম ৯৯৯ লিখে সেইভ করা কেনো?’ ছেলে তৎক্ষণাৎ কোনো লজ্জা না পেয়ে উল্টো সগৌরবে বুক ফুলিয়ে উত্তর দিলো, ‘আপু, ৯৯৯ যেমন সব কিছুর সমাধান পাওয়া যায়? মাশাআল্লাহ আপনাকে কোনো বিষয়ে কল দিলেও সব বিষয়ের সমাধান পাওয়া যায়। আপনি হলেন আমার ৯৯৯ আপু।’

কি করা উচিৎ এই ছেলেকে বলেনতো? রাগ করা উচিৎ নাকি একটি সেলফি দিয়ে তার ভেঙে যাওয়া সম্পর্ক জোড়া লাগিয়ে আরো একবার তার জীবনের ৯৯৯ এর সাহায্য করা উচিৎ।’

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

সর্বশেষ খবর