শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০১৫ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ নভেম্বর, ২০১৫ ২৩:৫১

বিদেশি হত্যা

জামিন নামঞ্জুর হীরা ও বিপ্লবের, মোন্নাফ ফের আটক

আদালত ও নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

জামিন নামঞ্জুর হীরা ও বিপ্লবের, মোন্নাফ ফের আটক

জাপানি নাগরিক হোশি কোনিও হত্যা মামলার আসামি হুমায়ুন কবির হীরা ও বিএনপি নেতা রাশেদ-উন-নবী খান বিপ্লবের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন রংপুরের একটি আদালত। গতকাল কড়া নিরাপত্তায় হীরা ও বিপ্লবকে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে হাজির করা হয়। হীরার পক্ষে আইনজীবী বদরুল ইসলাম বিব্বু এবং বিপ্লবের পক্ষে আইনজীবী আফতাব উদ্দিন জামিনের আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক শফিউল আলম জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে হীরা ও বিপ্লবকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন জানান, জাপানি নাগরিক হত্যা মামলাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দুই আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে ১৬ নভেম্বর মামলার পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে। এর আগে ১৯ অক্টোবর একই আদালতে বিপ্লবের আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করলে তা নামঞ্জুর করেন আদালত। ৩ অক্টোবর হোশি কোনিও বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহত হওয়ার পর তার ব্যবসায়িক সহযোগী হুমায়ুন কবির হীরা ও রংপুর মহানগর বিএনপির সদস্য বিপ্লবকে আটক করে পুলিশ। বিপ্লব ঢাকা মহানগর বিএনপি হাবীব-উন-নবী খান সোহেলের ছোট ভাই। পরে কোনিও হত্যা মামলায় হীরা ও বিপ্লবকে আসামি দেখিয়ে ৫ অক্টোবর ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। পাঁচ দিনের মাথায় ১০ অক্টোবর রিমান্ড বাতিল করে বিপ্লবকে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে রিমান্ডে থেকে যান হীরা। এরপর হীরাকে কোনিও হত্যা মামলায় দুই দফায় ১৫ দিন এবং কোতোয়ালি থানার একটি হত্যা মামলায় ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ২৮ অক্টোবর সন্ধ্যার পর হীরা জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শফিউল আলমের আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

আসামি সাখাওয়াতের স্বীকারোক্তি : ইতালীয় নাগরিক তাভেলা সিজার হত্যা মামলার আসামি সাখাওয়াত হোসেন শরীফ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক জেহাদ হোসেন আসামিকে আদালতে হাজির করে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর