Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:৪১

রাহুলের নাগরিকত্ব প্রমাণে নোটিস নতুন উত্তাপ ভারতের রাজনীতিতে

গৌতম লাহিড়ী, নয়াদিল্লি

রাহুলের নাগরিকত্ব প্রমাণে নোটিস নতুন উত্তাপ ভারতের রাজনীতিতে

‘রাহুল গান্ধী ব্রিটিশ নাগরিক’ বলে যে অভিযোগ বিজেপির সংসদ সদস্য সুব্রামনিয়াম স্বামী তুলেছেন ১৫ দিনের মধ্যে তার জবাব দেওয়ার জন্য রাহুলকে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এই ঘটনায় নতুন করে উত্তাপের সৃষ্টি হয়েছে ভারতের রাজনীতিতে। সুব্রামনিয়াম স্বামী কয়েক বছর ধরেই অভিযোগ করছিলেন যে, রাহুল কাগজপত্রে            নিজেকে ব্রিটিশ নাগরিক বলে ঘোষণা দিয়েছেন। নৈতিকতাবিষয়ক সংসদীয় কমিটিতে রাহুল বলেছিলেন, তিনি কখনই বিদেশি নাগরিকত্ব চাননি। বিজেপি নেতা দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করার মতলবে অভিযোগটি করে চলেছেন। অভিযোগের পক্ষে দালিলিক উপস্থাপনের চ্যালেঞ্জ দেন রাহুল।

চ্যালেঞ্জের পর সুব্রামনিয়াম স্বামী জানান, রাহুল গান্ধী ‘ব্যাকপস লিমিটেড’ নামের একটি কোম্পানির সঙ্গে সম্পৃক্ত। ২০০৩ সালে যুক্তরাজ্যে নিবন্ধিত এই কোম্পানির অন্যতম পরিচালক রাহুল। কোম্পানির ঠিকানা : ৫১ সাউথগেট স্ট্রিট, উইনচেস্টার, হ্যাম্পশায়ার। সুব্রামনিয়ামের এ তথ্য পেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নাগরিকত্ববিষয়ক পরিচালক বি সি যোশী ১৫ দিনের নোটিস দিয়েছেন রাহুলকে।

ভারতের জাতীয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ পর্বের চারটি যখন অতিক্রান্ত ঠিক তখন এ নোটিস জারি করা হলো। এ সময় উত্তর প্রদেশের আমেথি আসন এলাকায় ভাইয়ের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। তিনি বলেন, ‘গোটা দেশ জানে রাহুলের জন্ম ভারতে, রাহুল বড় হয়েছে এখানে।’ অভিযোগ সম্পর্কে প্রিয়াঙ্কা সাংবাদিকদের বলেন, ‘কী রাবিশ!’ বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি বলেন, ‘দলের সভাপতির জন্য এটা খুবই গুরুতর এক প্রশ্ন। ভোট দিতে হলে বা নির্বাচনে প্রার্থী হতে হলে ভারতের নাগরিকত্ব থাকতে হয়।’ কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সূর্যেওয়ালা বলেন, ‘বিজেপির মনে আতঙ্ক। বিজেপির একমাত্র এজেন্ডা রাহুল গান্ধী। তারা যা ইচ্ছা তা-ই করতে পারে। তবে নির্ঘাত নির্বাচনে হারবে।’


আপনার মন্তব্য