শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ মে, ২০১৯ ২৩:২৬

চাঁদাবাজি বন্ধে জিরো টলারেন্স

নিজস্ব প্রতিবেদক

চাঁদাবাজি বন্ধে জিরো টলারেন্স

সড়ক ও মহাসড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি অনুসরণের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। তিনি বলেন, মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টসমূহে সিসিটিভি স্থাপন, ট্রাক, পিকআপ ও পণ্যবাহী ট্রাকে যাত্রী পরিবহন রোধ এবং সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়া মহাসড়কে যানবাহন থামানো যাবে না। গতকাল পুলিশ সদর দফতর থেকে সব মেট্রোপলিটন ও রেঞ্জের পুলিশ কর্মকর্তাদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন আইজিপি। ভিডিও কনফারেন্সে মেট্রোপলিটন সদর দফতরসমূহে ডিসি ও তদূর্ধ্ব কর্মকর্তারা এবং রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ে রেঞ্জাধীন জেলা এসপি ও তদূর্ধ্ব কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আইজিপি বলেন, ঈদের কেনাকাটা নির্বিঘ্ন করতে মার্কেট ও শপিং মলে ভোররাত পর্যন্ত পোশাকে ও সাদা পোশাকে বিশেষ নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ। তিনি মার্কেট কমিটি কর্তৃক নিজস্ব নিরাপত্তাব্যবস্থা গড়ে তোলা, স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ এবং বৃহৎ মার্কেট ও শপিং মলে সিসিটিভি, হ্যান্ড মেটাল ডিটেক্টর এবং প্রয়োজনে আর্চওয়ে স্থাপনের পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, টার্মিনাল থেকে বাস ছাড়ার আগে ড্রাইভিং লাইসেন্স, অন্যান্য কাগজপত্র ও ফিটনেস পরীক্ষা করতে হবে। বাসের ছাদে যাত্রী নেওয়া যাবে না। চলন্ত ট্রেনে পাথর মারা বন্ধ করাসহ রেলপথে নাশকতা রোধে তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা প্রদান করেন। তিনি বলেন, নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়া যাবে না এবং অন্য কোনো স্থান থেকে নৌকা দিয়ে যাত্রী ওঠানো-ও যাবে না। আইজিপি বলেন, জাতীয় ঈদগাহ, কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া, দিনাজপুরের গোর এ শহীদ বড় ময়দান ঈদগাহসহ বিভাগ ও জেলার কেন্দ্রীয় ঈদ জামাতস্থল এবং ঈদের ছুটিতে আবাসিক এলাকা, ব্যাংক ও অর্থলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান, সোনার দোকান ইত্যাদির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। পুলিশপ্রধান বলেন, জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রমের ওপর গোয়েন্দা নজরদারি বাড়াতে হবে। জঙ্গিরা যাতে ভাড়া বাসাকে আস্তানা হিসেবে ব্যবহার করতে না পারে সে জন্য নিয়মিত ভাড়াটিয়া তথ্য সংগ্রহ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। বিদেশি কূটনৈতিক মিশন ও স্থাপনা এবং বিদেশি নাগরিকদের নিরাপত্তাসহ গুরুত্বপূর্ণ মেগা প্রজেক্ট, যেমন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পদ্মা সেতু, পায়রা সমুদ্রবন্দর, মাতারবাড়ী তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র ইত্যাদির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। জাকাত বিতরণকালে যে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্কতার সঙ্গে পর্যাপ্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সব ইউনিটকে নির্দেশ দেন আইজিপি। তিনি দেশব্যাপী মাদক, জাল টাকা, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, মানব পাচার রোধে বিশেষ অভিযান পরিচালনার নির্দেশ দেন।


আপনার মন্তব্য