শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৩২

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে উদ্বেগ ভ্যাকসিন আবিষ্কার!

জ্বর-কাশি নিয়ে ঢাকার হাসপাতালে চীনা নাগরিক । সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশ । আক্রান্ত তিন হাজার, মৃত ৮১

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে উদ্বেগ ভ্যাকসিন আবিষ্কার!

ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এর মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩ হাজার মানুষ এবং মারা গেছেন ৮১ জন। চীনের উহান শহরের গন্ডি পেরিয়ে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ১১টি দেশে। সংক্রামক এই ভাইরাস ঠেকাতে দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এর মধ্যে এই ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কারের দাবি করেছে চীন।

চীন থেকে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, অস্ট্রেলিয়া, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ফ্রান্স এবং যুক্তরাষ্ট্রে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। চীনে ভ্রমণে সতর্কতা জারি করছে অনেক দেশ। বিমানবন্দর, স্থলবন্দরগুলোতে নেওয়া হয়েছে কঠোর স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা। জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে গতকাল রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এক চীনা নাগরিক।

হাসপাতালে চীনা নাগরিক ভর্তি : জ্বর, কাশি নিয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতালে গতকাল দুপুরে এক চীনা নাগরিক ভর্তি হয়েছেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এমন বিবেচনায় তাকে একটি বিশেষ কক্ষে রাখা হয়েছে। তবে এখনো তার ভাইরাস পরীক্ষা হয়নি। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, আমরা ওই রোগীর বিষয়ে শুনেছি। কিন্তু এখনো তার লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গতকাল বেলা আড়াইটার দিকে ওই চীনা নাগরিক হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তার জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট ধরা পড়ে। সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী তাকে বাতাসে ঋণাত্মক চাপ আছে এমন একটি রুমে রাখা হয়েছে। এই রুমের বাতাস বাইরে যায় না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই চীনা নাগরিকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছেন, তিনি এ মাসের ১৮-২০ তারিখের মধ্যে ঢাকায় এসেছেন।

সারা দেশে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশ : নোবেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে আগাম প্রস্তুতি হিসেবে সারা দেশের সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশনা জারি করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। আপাতত দেশের আটটি বিভাগের সব জেলা সদর ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ইউনিট খোলা হবে। রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বিভাগীয় পরিচালক ও সিভিল সার্জনদের সঙ্গে করোনাভাইরাস নিয়ে ভিডিও কনফারেন্স চলাকালে এ নির্দেশনা দেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার বলেন, এখন পর্যন্ত দেশে নোবেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অনুসারে আগাম সতর্কতা হিসেবে হাসপাতালগুলোতে আইসোলেশন ইউনিট খুলতে বলা হয়েছে। সে নির্দেশনা অনুসারে প্রত্যেক সরকারি হাসপাতালে ৫ বেডের আলাদা ইউনিট খুলতে হবে। এটি সতর্কতামূলক আগাম প্রস্তুতি। এর আগে দেশের ২৪টি স্থল ও নৌবন্দরে আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয় এবং তা চিঠি দিয়ে বিভাগীয় পরিচালক ও সিভিল সার্জনদের জানিয়ে দেওয়া হয়। স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) পরিচালক ও রোগতত্ত্ববিদ অধ্যাপক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গতকাল সকাল পর্যন্ত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্ক্যানার মেশিন ও হ্যান্ড স্ক্যানিং মেশিনের মাধ্যমে দুই হাজার ৪৭০ জন যাত্রীর শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। তবে এখন পর্যন্ত দেশে কোনো করোনাভাইরাস রোগী পাওয়া যায়নি। তিনি জানান, হেলথ কার্ডের মাধ্যমে আগত যাত্রীদের তথ্য-উপাত্ত রাখা হচ্ছে। কোনো যাত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও তাৎক্ষণিকভাবে তার এ রোগের উপসর্গ দেখা দিতে পারে। দুই থেকে ১৪ দিনের মধ্যে রোগ দেখা দিতে পারে। এ কারণে যাত্রীদের বলা হচ্ছে, এ সময়ের মধ্যে যদি কেউ অসুস্থতা অনুভব করে তাহলে যেন আইইডিসিআরে যোগাযোগ করে।

ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি চীনের : দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসটি ঠেকাতে এরই মধ্যে আশার আলো দেখতে পেয়েছেন চীনের চিকিৎসকরা। চীনের ওই চিকিৎসকদের দাবি, ভাইরাসটি নির্মূলে যে নতুন ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছেন তাতে তারা সফল হয়েছেন। চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন শিনহুয়া নিউজ এজেন্সির এক প্রতিবেদনে বিজ্ঞানীদের এ দাবি প্রকাশিত হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটিতে বলা হয়েছে, দুটি হাসপাতালের সাতজন মেডিকেল স্টাফের ওপর এ নতুন ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এসব রোগীর দেহে সংক্রমিত ভাইরাসের লক্ষণগুলো নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। তারা বর্তমানে সুস্থ আছেন। তবে নতুন এই ভ্যাকসিনে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণের খবরটি এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। চীনের ওই হাসপাতালের চিকিৎসকদের দাবিকে তারা যাচাই করে দেখবেন বলে জানা গেছে।

এবার কলকাতায় : কলকাতায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে এক চীনা নাগরিককে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই নারীর নাম জো হুয়ামিন (২৮)। ছয় মাস আগে ভ্রমণে বেরিয়ে নামিবিয়া, মরিশাস, মাদাগাস্কা হয়ে গত ২৪ জানুয়ারি ভারতে প্রবেশ করেন তিনি। এর পরই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে তাকে এ্যাপোলোতে ভর্তি করা হয়। গতকাল রাতে সেখান থেকে স্থানান্তরিত করা হয় বেলেঘাটা হাসপাতালে।

ভাইরাস ঠেকাতে ৯ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের ঘোষণা চীনের : চীনের অর্থ মন্ত্রণালয় ও ন্যাশনাল হেলথ কমিশন ভাইরাস ঠেকাতে ৯ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের ঘোষণা দিয়েছে। চীনা নববর্ষের ছুটি বাড়ানো হয়েছে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। বেশ কিছু বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। কর্মীদের বাসা থেকে কাজ করতে বলেছে সরকার। চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং নতুন করোনাভাইরাসের উৎসস্থল উহান পরিদর্শন করেছেন। আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেকই এ প্রদেশের বাসিন্দা।


আপনার মন্তব্য