শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৫৭

ভল্টের টাকায় জুয়া খেলে রাজশাহীর ব্যাংক কর্মকর্তা রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

প্রিমিয়ার ব্যাংকের রাজশাহী শাখার তিন কোটি ৭৫ লাখ টাকা তুলে নিয়েছেন একই শাখায় কর্মরত এক কর্মকর্তা। টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ওই কর্মকর্তাকে ইতিমধ্যে গ্রেফতারও করা হয়েছে। তিনি পুলিশের কাছে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তার নামে মামলা হয়েছে। তাকে তিন দিনের রিমান্ডেও নেওয়া হয়েছে।

ব্যাংকের এই কর্মকর্তার নাম শামসুল ইসলাম ওরফে ফয়সাল। তিনি ব্যাংকের ক্যাশ ইনচার্জ। তার বিরুদ্ধে ক্যাশ থেকে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার রাত দেড়টায় মামলা করেছেন ব্যাংকের ওই শাখার ব্যবস্থাপক সেলিম রেজা খান। মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওইদিন সন্ধ্যা ছয়টার দিকে দিনের লেনদেন শেষে ক্যাশ মিলাতে গিয়ে তারা তিন কোটি ৭৫ লাখ টাকার হিসাব মিলাতে পারেননি। তখনই ক্যাশ ইনচার্জ শামসুল ইসলামকে তারা ধরে বসেন। রাত ১২টার দিকে তারা ওই কর্মকর্তাকে নিয়ে থানায় আসেন।

নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, তারা রাত ১২টার দিকে শামসুল ইসলামকে থানায় নিয়ে আসেন। কথাবার্তা বলে মামলা করতে রাত দেড়টা বেজে যায়। থানায় আনার পর তিনি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি ব্যাংক থেকে পৌনে ২ কোটি টাকা দুই বন্ধুকে দিয়েছেন। আর ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা নিজের একটি প্রকল্পের কিস্তি দিয়েছেন। তিনি টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রতি দেন। কিন্তু এ কয়দিনেও তিনি টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করেননি। এ জন্য তাকে গত সোমবার তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ। এ ব্যাপারে মামলার বাদী ও ব্যাংকের ব্যবস্থাপক সেলিম রেজা খানের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় শুনে ‘রং নাম্বার’ বলে ফোন কেটে দেন। তারপর তাকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি আর ফোন ধরেননি। মঙ্গলবার বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বলেন, ব্যাংকের ওই কর্মকর্তাকে থানায় রেখে জিজ্ঞাবাদ করা হচ্ছে। তিনি অসংলগ্ন কথা বলছেন। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে। এ টাকা উত্তোলনের পেছনে আরও কোনো কর্মকর্তার হাত রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর