Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ জুলাই, ২০১৯ ১২:০৫
আপডেট : ২২ জুলাই, ২০১৯ ১৩:১৬

১৬ মাস ধরে নাবালিকাকে ধর্ষণ বাবা-ছেলে ও দুই ভাতিজার!

অনলাইন ডেস্ক

১৬ মাস ধরে নাবালিকাকে ধর্ষণ বাবা-ছেলে ও দুই ভাতিজার!
প্রতীকী ছবি

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে এক নাবালিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল বাবা-ছেলে-ভাতিজাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের মধ্যে একজন নাবালক। ১৬ মাস ধরে চরম অত্যাচারের পর মেয়েটি পুলিশে অভিযোগ জানানোয় সব অভিযুক্তকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। 

ঘটনাটি ভারতের ভোপালের। সময়টা ২০১৮ সালের মার্চ মাস। তখন মেয়েটির বয়স ১৫। ক্লাস নাইনে পড়ত সে। কিন্তু মা মারা যাওয়ার পর তাকে পড়াশোনা ছেড়ে দিতে হয়। বাবা একটি বহুতল ভবনে ওয়াচম্যানের কাজ করতেন। সেই সময় ওই কিশোরীকে টাকার বিনিময়ে বাড়ির বাচ্চাদের দেখাশোনার জন্য ডেকে আনতেন এক কেটারিং কন্ট্রাক্টর। কিছুদিন পর থেকেই তিনি মেয়েটিকে পর্নোগ্রাফি দেখাতে শুরু করেন এবং ধর্ষণ করেন। এভাবে চলতে থাকে বেশ কিছুদিন। সবাইকে এ বিষয়ে বলে দেওয়ার হুমকি দিয়ে মেয়েটিকে যৌন নিগ্রহ শুরু করে অভিযুক্তের ২৩ বছরের ছেলেও। তিনি আইনের ছাত্র। 

কয়েক সপ্তাহ পর অভিযুক্তের ১৬ বছরের ভাতিজার কাছ থেকে একটি ফোন জোগার করে মেয়েটি তার স্কুলের এক বন্ধুর সাহায্য চায়। কিন্তু সাহায্য তো দূরের কথা, তিনিও বাবাকে বলে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। এই অপরাধে সামিল হয় ছেলেটির ভাইও। প্রতিবেশী আরও দু জন বিষয়টি জানতে পারলে তারাও সুযোগ পেয়ে ধর্ষণ করতে শুরু করে ওই নাবালিকাকে। 

অবশেষে মানসিক ও শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত মেয়েটি তার বাবাকে সব কথা খুলে বললে তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন। টুকোগঞ্জ থানার ইন-চার্জ তহজিব কাজি জানান, ‘অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে ৫০ বছরের কেটারিং কন্ট্রাক্টর, তার আইনের ছাত্র ছেলে ও ১৬ এবং ১৮ বছরের দুই ভাইপো রয়েছে।’

সূত্র: এই সময়

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য