শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৬:৪০

তুরস্ক গ্লোবাল ব্র্যান্ড হওয়ার জন্যই বারবার কাশ্মীরকে হাতড়াচ্ছে!

অনলাইন ডেস্ক

তুরস্ক গ্লোবাল ব্র্যান্ড হওয়ার জন্যই বারবার কাশ্মীরকে হাতড়াচ্ছে!

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান সুযোগ পেলেই কাশ্মীর প্রসঙ্গে নানা অভিমত জাহির করছেন। এর কারণ কী? বিশ্লেষকদের কারও কারও ধারণা, এরদোগান তার দেশকে গ্লোবাল ব্র্যান্ডে উন্নীত করতে চাইছেন। 

তাই নানা মঞ্চে গিয়ে বারবার কাশ্মীর প্রসঙ্গে পন্ডিতি অভিমত ব্যক্ত করছেন। এই তো সেদিন তিনি জাতিসংঘের সাধারণ সভার অধিবেশনে কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলে ভারতের সমালোচনা করলেন। ভারতও কঠোর ভাষায় পাল্টা জবাব দিয়েছে। 

বিবিসি জানায়, প্রেসিডেন্ট এরদোগান তার ভাষণে বলেছেন, জাতিসংঘে গৃহীত প্রস্তাবের কাঠামোর মধ্যে আলোচনার মাধ্যমেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে হবে- কিন্তু কাশ্মীরে দিল্লির সিদ্ধান্তই পরিস্থিতিকে জটিল করে তুলেছে। জবাবে ভারত বলেছে, এ মন্তব্য ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের শামিল এবং তা ‘সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য’। 

প্রেসিডেন্ট এরদোগান বারবার কাশ্মীর প্রসঙ্গ উত্থাপন করেছেন, কিন্তু এর মাধ্যমে তুরস্ক ঠিক কী লক্ষ্য অর্জন করতে চাইছে? তুর্কি প্রেসিডেন্টের পরপর দুই বছর জাতিসংঘে কাশ্মীর প্রসঙ্গ তোলার পর ভারত এবার রীতিমতো কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে।

জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি ইউ এন তিরুমূর্তি প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই টুইট করে বলেছেন, অন্য দেশের সার্বভৌমত্বকে মর্যাদা দেওয়া তুরস্ককে শিখতে হবে, গভীরভাবে ভাবতে হবে নিজেদের নীতিগুলো নিয়েও! তবে প্রশ্ন হলো, তুরস্ক থেকে বহু দূরের কাশ্মীর নিয়ে প্রেসিডেন্ট এরদোগান এভাবে বারবার কেন মুখ খুলছেন?

ইউরোপিয়ান কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনসের সিনিয়র পলিসি ফেলো আসলি আয়দিনতাসবাস ইস্তাম্বুল থেকে বলছিলেন, আসলে তুরস্ক একটি গ্লোবাল ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেদের উন্নীত করতে চায়।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর