শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৫০
আপডেট : ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৫:৪৬
প্রিন্ট করুন printer

কৃত্রিম সূর্য বানালো চীন, তাপমাত্রা ১৫০ মিলিয়ন ডিগ্রির বেশি

অনলাইন ডেস্ক

কৃত্রিম সূর্য বানালো চীন, তাপমাত্রা ১৫০ মিলিয়ন ডিগ্রির বেশি

কৃত্রিম সূর্য। আসলে যা নিউক্লিয়ার ফিউশন রিঅ্যাকটর। চীন সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, তারা একটি কৃত্রিম সূর্য তৈরি করেছে। এর ফলে চীনের পরমাণু শক্তি গবেষণার ক্ষমতা বহু গুণ বেড়ে গেল বলে তাদের দাবি।

এই রিঅ্যাকটরের নাম 'এইচএল-২এম টোকামাক'। চীনের বৃহত্তম ও আধুনিকতম এই নিউক্লিয়ার ফিউশন এক্সপেরিমেন্টাল রিসার্চ ডিভাইসের মাধ্যমে দূষণহীন শক্তিশালী এই শক্তির উৎস উন্মুক্ত করা সম্ভব বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন। গরম প্লাজমা দ্রবীভূত করতে এই রিঅ্যাকটর ব্যবহার করে একটি শক্তিশালী চৌম্বকীয় ক্ষেত্র, এর ফলে এর তাপমাত্রা ১৫০ মিলিয়ন ডিগ্রি সেলসিয়াস টপকে যেতে পারে। অর্থাৎ সূর্যের থেকে উষ্ণতা ১০ গুণ বেশি।

চীনের দক্ষিণ পশ্চিম সিচুয়ান প্রদেশে গত বছর শেষ হয়েছে এই রিঅ্যাকটর তৈরির কাজ। চীনা সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম পিপলস ডেইলির দাবি, এর ফলে শুধু যে চীনের বিদ্যুৎশক্তির কৌশলগত চাহিদা মিটবে না, ভবিষ্যতে শক্তি ও জাতীয় অর্থনীতিতেও বিরাট অবদান রাখবে। 

২০০৬ সাল থেকে চীনা বিজ্ঞানীরা ছোট ছোট নিউক্লিয়ার ফিউশন রিঅ্যাকটর তৈরির চেষ্টা করছেন। এদিকে, ফ্রান্সে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম নিউক্লিয়ার ফিউশন রিসার্চ প্রজেক্ট ইন্টারন্যাশনাল থার্মোনিউক্লিয়ার এক্সপেরিমেন্টাল রিঅ্যাকটর, যার কাজ শেষ হবে সম্ভবত ২০২৫ সালে। এ নিয়ে কর্মরত বৈজ্ঞানিকদের সঙ্গে কাজ করার সময় তারা এই ‘কৃত্রিম সূর্য’ ব্যবহার করতে চান।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:০৮
প্রিন্ট করুন printer

যুক্তরাজ্যে ফেরার অনুমতি পেলেন না শামীমা

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যে ফেরার অনুমতি পেলেন না শামীমা
শামীমা বেগম। ফাইল ছবি

যুক্তরাজ্যে ফেরার অনুমতি পেলেন না বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক স্কুলছাত্রী শামীমা বেগম। আজ শুক্রবার ব্রিটেনের সুপ্রিম কোর্ট এই রায় ঘোষণা করেছেন। নাগরিকত্ব বাতিল হওয়ার সিদ্ধান্ত আইনগতভাবে মোকাবিলায় ব্রিটেনে ফিরে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছিলেন শামীমা। 

মাত্র ১৫ বছর বয়সে স্কুলের দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে আইএসএ যোগ দিতে লন্ডন থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমান তিনি। ছয় বছর পর দেশটির সর্বোচ্চ আদালত তার ফেরা নিয়ে আজ সিদ্ধান্ত জানাতে যাচ্ছে।

এখন উত্তর সিরিয়ায় সশস্ত্র রক্ষীদের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি ক্যাম্পে দুর্গত অবস্থায় আছেন শামীমা। তার স্বামী সিরীয় কারাগারে আছেন বলে মনে করা হচ্ছে এবং তাদের তিনটি সন্তানই মারা গেছে। 

২১ বছর বয়সী শামীমার দাবি, ব্রিটিশ সরকারের বেআইনি সিদ্ধান্তে তিনি রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়েছেন এবং তার মৃত্যুর ঝুঁকি আছে। শামীমার আইনজীবীদের যুক্তি, শুনানিতে অবাধে অংশ নিতে না পারলে এ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারীর ব্রিটিশ নাগরিকত্ব স্বয়ংক্রিয়ভাবে বহাল হয়ে যাবে।

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যে ফিরতে চান শামীমা। তবে দেশটির সরকার রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে তার নাগরিকত্ব বাতিল করে। এরপর বিষয়টি আদালতে গড়ায়। পরে গত বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল করার সিদ্ধান্তকে বৈধ বলে রায় দেন যুক্তরাজ্যের একটি আদালত।  

সূত্র: বিবিসি  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৫৯
প্রিন্ট করুন printer

গাড়ির ওপর নাচছিলেন কনে, সব তছনছ করে দিল দ্রুত গতির গাড়ি!

অনলাইন ডেস্ক

গাড়ির ওপর নাচছিলেন কনে, সব তছনছ করে দিল দ্রুত গতির গাড়ি!

সুসজ্জিত গাড়ির ওপর নাচছিলেন কনে। বর ও কনের বাড়ির সদস্যরা ঘিরে রেখেছিলেন গাড়িটিকে। মহাসড়কের পাশে ধীরগতিতে চলছিল গাড়িটি। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই তছনছ হয়ে যায় সব। বিপরীত দিক থেকে আসা একটি গাড়ি এসে পিষে ফেলে ওই বিয়ে বাড়ির কয়েক যাত্রীকে। 

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুজাফফর নগরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বর অঙ্কুরের চাচাত ভাই প্রমোদ নিহত হন। গুরুতর আহত হন অনেকে। তাদের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, বরযাত্রীরা ধীরে ধীরে বিয়ের দিকে মণ্ডপের দিকে এগোতে শুরু করেছিলেন। তবে তারা কেউই নাচতে নাচতে খেয়াল করেননি যে তারা মহাসড়কের ওপর চলে এসেছেন। তখনই উল্টোদিক থেকে তুমুল বেগে একটি গাড়ি এসে ধাক্কা মারে বরযাত্রী সদস্যদের। ঘটনাস্থলেই বর অঙ্কুরের চাচাত ভাই প্রমোদ মারা যায়। গুরুতর আহত হন অনেকে। তাদের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন অনেকে। 

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৫৪
প্রিন্ট করুন printer

শামীমার ভাগ্যে কী আছে, জানা যাবে আজ

অনলাইন ডেস্ক

শামীমার ভাগ্যে কী আছে, জানা যাবে আজ

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক স্কুলছাত্রী শামীমা বেগম যুক্তরাজ্যে ফিরতে পারবেন কি না, তা জানাতে আজ শুক্রবার রায় ঘোষণা করবেন ব্রিটেনের সুপ্রিম কোর্ট। নাগরিকত্ব বাতিল হওয়ার সিদ্ধান্ত আইনগতভাবে মোকাবিলায় ব্রিটেনে ফিরে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছেন শামীমা। 

মাত্র ১৫ বছর বয়সে স্কুলের দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে আইএসএ যোগ দিতে লন্ডন থেকে পালিয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমান তিনি। ছয় বছর পর দেশটির সর্বোচ্চ আদালত তার ফেরা নিয়ে আজ সিদ্ধান্ত জানাতে যাচ্ছে।

এখন উত্তর সিরিয়ায় সশস্ত্র রক্ষীদের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি ক্যাম্পে দুর্গত অবস্থায় আছেন শামীমা। তার স্বামী সিরীয় কারাগারে আছেন বলে মনে করা হচ্ছে এবং তাদের তিনটি সন্তানই মারা গেছে। 

২১ বছর বয়সী শামীমার দাবি, ব্রিটিশ সরকারের বেআইনি সিদ্ধান্তে তিনি রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়েছেন এবং তার মৃত্যুর ঝুঁকি আছে। শামীমার আইনজীবীদের যুক্তি, শুনানিতে অবাধে অংশ নিতে না পারলে এ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারীর ব্রিটিশ নাগরিকত্ব স্বয়ংক্রিয়ভাবে বহাল হয়ে যাবে।

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যে ফিরতে চান শামীমা। তবে দেশটির সরকার রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে তার নাগরিকত্ব বাতিল করে। এরপর বিষয়টি আদালতে গড়ায়। পরে গত বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল করার সিদ্ধান্তকে বৈধ বলে রায় দেন যুক্তরাজ্যের একটি আদালত।  

সূত্র: বিবিসি

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ 

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৪২
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৫৭
প্রিন্ট করুন printer

ভেনেজুয়েলা থেকে বহিষ্কার হলেন ইইউ রাষ্ট্রদূত

অনলাইন ডেস্ক

ভেনেজুয়েলা থেকে বহিষ্কার হলেন ইইউ রাষ্ট্রদূত
সংগৃহীত ছবি

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে ভেনেজুয়েলা। ভেনেজুয়েলার ১৯ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ আরিয়াজা এই ঘোষণা দেন। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশ ছাড়তে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে দেশটির সরকার।

সম্প্রতি, ইইউ রাষ্ট্রদূত ইসাবেল ব্রিলহান্তে পেড্রোসার ‘গণতন্ত্রের ক্ষতিসাধনের’ অভিযোগে ভেনেজুয়েলার ১৯ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। এই ব্যাপারে ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সম্মত হওয়ার পরেই কারাকাসে নিযুক্ত এই রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেন ভেনিজুয়েলার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ আরিয়াজা।

আরিয়াজা সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সিদ্ধান্ত আমরা ইসাবেল ব্রিলহান্তকে জানিয়ে দিয়েছি। ভেনেজুয়েলা ছাড়তে তাকে ৭২ ঘণ্টা সময় দেয়া হয়েছে।’

অন্যদিকে, ব্রাসেলসে ইইউ ভেনেজুয়েলার এমন সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে কারাকাসের প্রতি দাবি জানিয়েছে। ইইউ নারী মুখপাত্র নাবিলা মাসরালি বলেন, ‘ইইউ এই সিদ্ধান্তে গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছে। এমন সিদ্ধান্তের ফলে ভেনেজুয়েলা আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে ফের বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। আমরা এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের আহ্বান জানাচ্ছি। ভেনেজুয়েলা কেবল আলোচনা ও সংলাপের মাধ্যমে চলমান সংকট কাটিয়ে উঠতে পারে।’

টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে মাদুরো ইইউয়ের প্রতি সতর্কবাণী উচ্চারণ করে বলেছেন, ‘আমরা এটা করতে চাইনি, আমরা আমাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে করতে বাধ্য হয়েছি, কারণ আমরা ইউরোপের সবগুলো দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চেয়েছিলাম। আমরা ভেনেজুয়েলার ওপর কোনো ধরনের হামলা বা নিষেধাজ্ঞা মেনে নিতে পারি না।’

এছাড়াও,পর্তুগিজ রাষ্ট্রদূতকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশ ছাড়তে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে। এর ফলে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

 

বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির   


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৪:৩৫
প্রিন্ট করুন printer

যে পাখি অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী!

অনলাইন ডেস্ক

যে পাখি অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী!
এই সেই পাখি।

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে একটি বিরল পাখি দেখা গেছে। পাখিটির নাম নর্দার্ন কার্ডিনাল। পাখিটির বিশেষত্ব হলো এটির শরীরের অর্ধেকটা নারী এবং অর্ধেকটা পুরুষের মতো দেখতে। পুরুষ কার্ডিনালগুলো সাধারণত উজ্জ্বল লাল রঙের হয়ে থাকে এবং নারী কার্ডিনালগুলো হয়ে থাকে ফ্যাকাসে বাদামি রঙের। তাই এই পাখিটি দুটি লিঙ্গের মিশ্রণ হতে পারে। 

পাখি বিশেষজ্ঞ জেমি হিল যখন তার বন্ধুর কাছ থেকে এই পাখির বিষয়ে জানতে পারেন, তৎক্ষণাৎ তার ক্যামেরা নিয়ে ছুটে যান। আর বিরল এই পাখির ছবি ধারণ করেন। যদিও এটিই প্রথম নয়, তবে এটা নিশ্চিত যে মিশ্র লিঙ্গের পাখি অনেক বিরল।

৬৯ বছর বয়সী পাখিবিদ জেমি হিল বলেন, ‘এমন মুহূর্ত সারা জীবনে শুধু একবার পাওয়া যায়, লাখে একটা ঘটনা।’ বন্ধুর কাছ থেকে জানার পর জেমি হিল প্রথমে ভেবেছিলেন, পাখিটি হয়তো ‘লুইসিস্টিক’ সমস্যায় আক্রান্ত। ‘লুইসিস্টিকে’ আক্রান্ত পাখির পালকগুলো রং হারিয়ে ফেলে এবং বর্ণহীন মনে হয়। তাই পাখিটির অর্ধেক নারী এবং অর্ধেক পুরুষ হবে বলে তিনি শুরুতে ধারণা করেননি।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর