৬ নভেম্বর, ২০২১ ১৭:১৮

তেলের দাম বাড়িয়ে ক্ষমতা হারানোর ঝুঁকিতে ইমরান খান

অনলাইন ডেস্ক

তেলের দাম বাড়িয়ে ক্ষমতা হারানোর ঝুঁকিতে ইমরান খান

ফাইল ছবি

পাকিস্তানের নড়বড়ে অর্থনীতি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বেকায়দায় ফিলে দিয়েছে। মুদ্রাস্ফীতির সাথে দ্রব্যমূল্যও লাগামহীন হয়ে পড়েছে। এতে দিনকে দিন ইমরান খান সরকারের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি জনগণের অসন্তোষের বাড়ছে। এর মধ্যে তেলের দাম বাড়িয়ে ক্ষমতা হারানোর ঝুঁকিতে পড়েছেন ইমরান খান।

গতকাল শুক্রবার দেশটির জাতীয় সংসদে প্ল্যাকার্ড হাতে স্লোগান দিয়ে তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিরোধী দলীয় আইনপ্রণেতারা। তারা জনগণের দুর্ভোগ লাঘবে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগে পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগও দাবি করেছেন। এ নিয়ে সরব হয়েছেন পাকিস্তানের বিরোধী দলীয় রাজনীতিবিদরা। খবর ডনের।

গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, অর্থনৈতিক সংকট কাটানোর কথা বলে গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে দেশটিতে পেট্রোলিয়াম পণ্যের দাম লিটারপ্রতি প্রায় আট রুপি বাড়ানো হয়েছে। পাকিস্তানে পেট্রলের দাম ৮ দশমিক ০৩ রুপি বেড়ে প্রতি লিটার বিক্রি হচ্ছে ১৪৫ দশমিক ৮২ রুপিতে। ডিজেলের দাম ৮ দশমিক ১৪ রুপি বেড়ে হয়েছে ১৪২ দশমিক ৬২ রুপি। আর কেরোসিনের দাম লিটারপ্রতি ৬ দশমিক ২৭ রুপি বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১১৬ দশমিক ৫৩ রুপিতে।

গতকাল পাকিস্তানের পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে পিএলএম-এন নেতা খাজা আসিফ কড়া সমালোচনা করেন ইমরান সরকারের। একই সময় বিরোধী দলীয় বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে এবং দরিদ্রদের সাহায্যে ইমরান খানের ১২ হাজার কোটি রুপির ত্রাণ প্যাকেজকে ভুয়া দাবি করেন। তারা সংসদ থেকে ওয়াকআউট করে ‘চিনি চোর’ ও ‘আটা চোর’ স্লোগান দেন।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর