Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৫৪

বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে ১১ জনের মৃত্যু

প্রতিদিন ডেস্ক

বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে ১১ জনের মৃত্যু

দেশের বিভিন্ন স্থানে গতকাল বজ্রপাতের ঘটনায় ১১ জন প্রাণ হারিয়েছেন। একই সঙ্গে কয়েকটি গরুও মারা গেছে। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ফরিদপুর : ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা ও সালথা উপজেলায় বজ্রপাতে এক নারীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বেলা ২টার দিকে বজ্রপাতে এ তিনজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছেন আরও দুজন। স্থানীয়রা জানান,  সালথা উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের কাগদি স্বজনকান্দা ও বাতাগ্রামে বৃষ্টিপাতের আগে বিকট শব্দে বজ্রপাত শুরু হয়। বজ্রপাতে কাগদি স্বজনকান্দা গ্রামের ইদ্রিস মোল্লার স্ত্রী হাসি বেগম (৪৫) ও বাতাগ্রামের ইসমাইল মোল্লার ছেলে বিল্লাল মোল্লা (৪৭) নিহত হন। এদিকে একই সময় নগরকান্দা উপজেলার তালমা ইউনিয়নের দক্ষিণ বিলনালিয়া গ্রামে ইমরান বেপারি (২২) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। মিাদারগঞ্জ (জামালপুর) : গতকাল বিকালে মাদারগঞ্জে বজ্রপাতে সরোয়ার (১৫) ও রাসেল (২২) নামে দুজন নিহত হয়েছেন। সরোয়ার উপজেলার খিলকাটি গ্রামের টিটু মিয়ার ছেলে। সিরাজগঞ্জ : রায়গঞ্জে বজ্রপাতে ধুইতা সেখ (৫৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধুইতা সেখ চাঁদপুর গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. গোলাম সরওয়ার লিটন জানান, দুপুর ৩টার দিকে ঝড় ও বৃষ্টির মধ্যে কৃষক ধুইতা নিজ কৃষিজমিতে আগাছা পরিষ্কার করার কাজ করছিলেন। এ সময় বজ্রপাতে তার শরীর ঝলসে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মানিকগঞ্জ : ঘিওর উপজেলায় বজ্রপাতে মঙ্গল চন্দ্র সরকার (৫৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুরে উপজেলার মৌহালী এলাকার এই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। নিহত মঙ্গল চন্দ্র সরকার মৌহালী এলাকার মৃত লালু চন্দ্র সরকারের ছেলে। গলাচিপা (পটুয়াখালী) : গলাচিপায় মো. মতিউর রহমান ফরাজী (৬৫)  নামে এক কৃষকের বজ্রপাতে মৃত্যু হয়েছে। নিহত মতিউর রহমান উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের হরিদেবপুর গ্রামের মৃত ধলু ফরাজীর ছেলে। বগুড়া : সারিয়াকান্দি উপজেলার পৃথক তিনটি স্থানে বজ্রপাতে ৩ জন নিহত এবং ২ জন আহত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গতকাল বিকালে একই সময় তিনটি স্থানে বজ্রপাতের ঘটনায় ৫টি গরুও মারা গেছে। বগুড়ার সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ জানায়,  বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয় বাসিন্দা নূরু প্রামাণিকের ছেলে আমিরুল ইসলাম (৪০) ও আমিরুলের স্ত্রী ফাইমা বেগম বেলচা (৩০) নিহত হন। এ সময় তাদের ৫টি গরুই মারা যায়। ঠিক একই সময় উপজেলার সদর ইউনিয়নের নিজ বাটিয়া চরের তহসিনের ছেলে সুমন (৩২) পাট ধোয়ার সময় বজ্রপাতে আহত হন। তাকে সারিয়াকান্দি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ছাড়া আরও একটি বজ্রপাতে সারিয়াকান্দি পৌর এলাকার ধাপ গ্রামের তবিবর রহমান ফকিরের ছেলে মো. সুমন (২১) কালিতলা গ্রোয়েন বাঁধে চায়ের দোকানে বজ্রপাতে আহত হন। আহতরা  সারিয়াকন্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বগুড়ার সারিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ আল আমিন জানান, একই দিনে পৃথক তিনটি স্থানে বজ্রপাতের ঘটনায় তিনজন মারা গেছে। লাশগুলো পরিবারের সদস্যদের কাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য