শিরোনাম
রবিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ টা
অষ্টম কলাম

দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মিলিয়ন ডলারের মালিক নেপালি বুডা

লাবলু আনসার, যুক্তরাষ্ট্র

দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মিলিয়ন ডলারের মালিক নেপালি বুডা

ঘটনাটি সিনেমার মতোই। নিরাপদে বসবাস করে উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ রচনার স্বপ্নে আমেরিকার মাটিতে পা রাখার তিন মাসের মাথায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে মিলিয়ন ডলারের মালিক হলেন নেপালি বুডা। গ্রিনকার্ডের আশায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেন বুডা। তা বিবেচনাধীন অবস্থায়ই দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণ মামলায় জিতে বিপুল অর্থের মালিক হওয়ার ক্ষেত্রে আইনগত সহায়তা দিয়েছেন কমিউনিটির সুপরিচিত অ্যাটর্নি দিল্লি রাজ ভাট্টা। ভাট্টার মালিকানাধীন ‘ভাট্টা ল অ্যান্ড হারবার্ট’-এর পক্ষে এ মামলায় জয়ী হতে যাবতীয় সহায়তা দিয়েছেন এ ফার্মে বাংলাদেশি লিগ্যাল অ্যাডভাইজার শামিম শাহেদ। তিনি জানান, বুডা একজন ফুড ডেলিভারিম্যান, নেপালি নাগরিক। ভাগ্যের চাকা ঘোরাতে আমেরিকায় পাড়ি জমিয়েছেন। কিছুদিন নিরুদ্দেশ ঘুরে বেড়ানোর পর যুক্ত হন ফুড ডেলিভারির কাজে। একদিন খাবার সরবরাহ করার সময় নিউইয়র্কে রাস্তার মধ্যে তাকে আঘাত করে একটি স্যানিটেশন ট্রাক। আহত হন বুডা। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েই শরণাপন্ন হন ভাট্টা ল অ্যান্ড হারবার্টের কাছে। বিভিন্ন অ্যাক্সিডেন্ট মামলায় আহতদের অধিকার আদায়ে কাজ করে ভাট্টা ল অ্যান্ড হারবার্ট। তার পরই ঘটনা পাল্টে যেতে থাকে। আহত বুডার পক্ষ হয়ে আইনি লড়াই চালাতে থাকে এ ফার্ম। তারা একটি অ্যাক্সিডেন্ট অ্যান্ড পারসোনাল ইনজুরি কেস ফাইল করে। বুডার আহত হওয়ার জন্য ক্ষতিপূরণ চায়। রিসার্চের কাজটি করতে হয় শামিম শাহেদকেই। নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে অ্যাক্সিডেন্টের শিকার বুডার হয়ে মামলায় জিতে যায় ভাট্টা ল অ্যান্ড হারবার্ট। তারপর বুডার জন্য পুরো আমেরিকাই যেন এক স্বপ্নপুরী হয়ে দাঁড়ায়। বুডা বিজয়ী হন ১ মিলিয়ন ডলার প্রাপ্তির মধ্য দিয়ে।

কেমন লাগছে আপনার- প্রশ্ন করতেই বুডার উত্তর, ‘খুবই ভালো লাগছে। সবচেয়ে ভালো লাগছে এজন্য যে আমি ১ মিলিয়ন ডলার জিতেছি, কিন্তু আমার এক পয়সাও খরচ করতে হয়নি।’

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর