শিরোনাম
শনিবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২৩ ০০:০০ টা
কলকাতার আদালত

পি কের শুনানি ৪ ফেব্রুয়ারি

কলকাতা প্রতিনিধি

বাংলাদেশ থেকে কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে অভিযুক্ত বাংলাদেশভিত্তিক এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারসহ ছয় অভিযুক্তকে অতিরিক্ত ২২ দিনের হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতার আদালত।

বিচার বিভাগীয় হেফাজতের মেয়াদ শেষে গতকাল কলকাতার নগর দায়রা আদালতে তোলা হলে স্পেশাল সিবিআই কোর্ট-৩-এর বিচারক শুভেন্দু সাহা এ নির্দেশ দেন। ৪ ফেব্রুয়ারি ফের অভিযুক্তদের আদালতে তোলা হবে।

৩৬ দিনের জেল হেফাজত শেষে এদিন স্থানীয় সময় ১০টা নাগাদ অভিযুক্তদের আদালতে আনা হয়। পৌনে ১২টা নাগাদ তাদের স্পেশাল সিবিআই কোর্ট-৩-এর বিচারক শুভেন্দু সাহার এজলাসে তোলা হয়। উভয় পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য শুনে বিচারক ৪ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী হাজিরার দিন ধার্য করেন। ওই দিনই পি কে হালদারের ভাই এবং অন্যতম অভিযুক্ত প্রাণেশ কুমার হালদারের জামিনের আবেদনের শুনানি হবে। অন্যদিকে একমাত্র নারী অভিযুক্ত আমানা সুলতানা ওরফে শর্মী হালদারের যথোপযুক্ত চিকিৎসার জন্য কারাগার কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন আদালত। ইতোমধ্যে কারাগার কর্তৃপক্ষের তরফে কলকাতার সুপার স্পেশালিটি হসপিটালে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ইডির আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী বলেন, অভিযুক্ত প্রত্যেককেই ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

অরিজিৎ চক্রবর্তী আরও জানান, অভিযোগ জমা পড়েছে। নতুন করে তদন্তও চলছে। নতুন করে এ মামলায় বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য অগ্রগতিও এসেছে। আশা করি পরে আরও অভিযোগপত্র জমা পড়বে এবং তারপর শুনানি শুরু হবে।

উল্লেখ্য, কলকাতার অনতিদূরে অশোকনগরসহ পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় অভিযান চালিয়ে গত বছরের ১৪ মে পি কে হালদারকে গ্রেফতার করে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট-ইডি। একই সময় গ্রেফতার করা হয় তার ভাই প্রাণেশ হালদার, স্বপন মিস্ত্রি ওরফে স্বপন মৈত্র, উত্তম মিস্ত্রি ওরফে উত্তম মৈত্র, ইমাম হোসেন ওরফে ইমন হালদার, আমানা সুলতানা ওরফে শর্মী হালদারকে।

গত ১১ জুলাই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কলকাতার আদালতে চার্জশিট জমা দেয় ইডি। অর্থ পাচারসংক্রান্ত আইন-২০০২ ও দুর্নীতি দমন আইন-১৯৮৮ মামলায় ওই ছয় অভিযুক্তের নামে চার্জ গঠন করা হয়। বর্তমানে অভিযুক্ত পি কে হালদারসহ পাঁচ পুরুষ অভিযুক্ত রয়েছেন প্রেসিডেন্সি কারাগারে। একমাত্র নারী অভিযুক্ত আলিপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে।

 

সর্বশেষ খবর