শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ১৫:০৭
আপডেট : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ১৯:২৭
প্রিন্ট করুন printer

মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়, সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক

মূর্তি আর ভাস্কর্য এক নয়, সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর
ফাইল ছবি

ভাস্কর্য নিয়ে দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেছেন, ‌‘‌‌বিশ্বের সব দেশেই ভাস্কর্য আছে, মূর্তি আর ভাস্বর্য এক নয়।’ 

আজ রবিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। নতুন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে তিনি আজ সচিবালয়ে প্রথম অফিস করেন। প্রথমে সেখানে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে পরিচয়পর্ব শেষ করেন। পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

দেশে কিছু দুষ্ট লোক থাকলেও সরকারের কঠোর মনোভাবের কারণে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় আছে উল্লেখ করে আলোচনার মাধ্যমে চলমান সংকট সমাধানের আশা প্রকাশ করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

ফরিদুল হক খান বলেন, ‘আগামীতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করা হবে। ধর্মনিরপেক্ষতার চেতনা ধারণ করে, সব ধর্মাবলম্বীর সমঅধিকার নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:০৮
প্রিন্ট করুন printer

সাংবাদিকদের পেনশনের আওতায় আনার কাজ চলছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিকদের পেনশনের আওতায় আনার কাজ চলছে: পরিকল্পনামন্ত্রী
ফাইল ছবি

সাংবাদিকসহ দেশের সব নাগরিককে পেনশনের আওতায় আনার কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ. মান্নান। তিনি বলেন, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য পেনশন স্কিমের কাজ চলছে। সাংবাদিকেরা সমাজের অগ্রসর মানুষ। তারা আমাদের ভুলভ্রান্তি ধরিয়ে দেন। তারা সমাজের আয়না। তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পেনশনের আওতায় আনার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।

আজ বুধবার বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) প্রয়াত সদস্যদের স্মরণে আলোচনা সভা, মরণোত্তর সম্মাননা ও সন্তানদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। মন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকদের কাজে ঝুঁকি শুধু নয়; ভয়ংকর ঝুঁকি রয়েছে। তাই তাদের জন্য ঝুঁকি তহবিল কীভাবে করা যায় সেটি ভেবে দেখা হবে। এ ছাড়া সাংবাদিকদের যে কল্যাণ তহবিল যেটা আছে সেটি কীভাবে আরও প্রসারিত করা যায়, বরাদ্দ বাড়ানো যায় সেটি দেখা হবে। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলব।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:৩৮
আপডেট : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:৪২
প্রিন্ট করুন printer

বাংলাদেশ কয়েক বছরের মধ্যেই ডিজিটাল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হবে : পলক

নরসিংদী প্রতিনিধি

বাংলাদেশ কয়েক বছরের মধ্যেই ডিজিটাল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হবে : পলক

আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ ডিজিটাল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হিসেবে বিশ্বে নিজেদের সক্ষমতার পরিচয় দেবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার বিকেলে নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার আমতলা এলাকায় ফেয়ার গ্রুপের স্যামসাং এসি কারখানার উদ্বোধন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, গত দুই বছরে স্যামসাং এখানে প্রায় ১৫ লাখ মোবাইল তৈরি করেছে। আগামী বছর থেকে এই কারখানা থেকে ২৫ লাখ মোবাইল তৈরি করবে। আগামী বছর থেকে বাংলাদেশে আর কোনো স্যামসাং মোবাইল আমদানি হবে না। আগামী দুই-এক বছরের মধ্যে স্যামসাংয়ের টিভি, রেফ্রিজারেটর, এয়ারকন্ডিশন ও স্মার্টফোন কেবল বাংলাদেশে তৈরিই হবে না বিদেশে রফতানি শুরু হবে। অল্পদিনের মধ্যেই আমরা ডিজিটাল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হিসেবে পরিণত হবো।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদন করে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে। যার ফলে আইসিটি খাতে ১৫ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান নিশ্চিত হয়েছে। আইসিটি খাতে সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার রফতানি করে ১ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে, যা ২১ সালে ২০ লাখ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হবে। ২০২৫ সালে আইসিটি খাত থেকে ৫ বিলিয়ন ডলার আয় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

দক্ষজনবল সৃষ্টির লক্ষে নরসিংদীতে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিওবেশন সেন্টার ও হাইটেক পার্ক গড়ে তোলা হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত এইচ ই লি জ্যাং কেয়ান, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম এবং নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন।

এছাড়াও স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হয়্যানসাং উ, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্যাংওয়ান ইউন, ফেয়ার গ্রুপের চেয়ারম্যান রুহুল আলম আল মাহবুব, ডিরেক্টর মুতাসিম দাইয়ান, উপদেষ্টা মেজর জেনারেল হামিদ আর চৌধুরী, চীফ মার্কেটিং অফিসার মেসবাহ উদ্দিন, ডিরেক্টর অপারেশন ফিরোজ মোহাম্মদ, হেড অফ মার্কেটিং জে এম তসলিম কবীরসহ সরকারের অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, স্যামসাং এবং ফেয়ার গ্রুপের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:০৭
প্রিন্ট করুন printer

বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্ক অনেক সুদৃঢ় : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্ক অনেক সুদৃঢ় : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্ক অনেক সুদৃঢ় বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, স্বাধীনতার সময় থেকেই বাংলাদেশের পাশে রয়েছে জাপান। বুধবার ফরেন সার্ভিস একাডেমীতে এক প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত জাপানি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার ফরেন সার্ভিস একাডেমির মাল্টিপারপাস হলে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বেঙ্গল নো চিচি লামা (বাংলাদেশের জনক) শিরোনামে বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্রটি পরিচালনা করেছেন ওশিমা নাগাসি নামে একজন জাপানি চলচ্চিত্র পরিচালক।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। সম্মানিত অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। বিশেষ অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, জাতির জনকের জন্মশতবর্ষ উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

বক্তারা বলেন, জাপানি চলচ্চিত্র পরিচালক ওশিমা নাগাসি ১৯৭৩ সালে বেঙ্গল নো চিচি লামা নির্মাণ করেন। এতে বঙ্গবন্ধুর জীবন সংগ্রাম তুলে ধরা হয়েছে। নতুন প্রজন্ম চলচ্চিত্রটি দেখে বঙ্গবন্ধু জীবনের অনেক কিছু জানতে পারবে। অনুষ্ঠানে আলোচনা শেষে প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটি প্রদর্শন করা হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:৪৭
প্রিন্ট করুন printer

বিদ্রুপকারীদেরও বেঁচে থাকার জন্য ভ্যাকসিন দেয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বিদ্রুপকারীদেরও বেঁচে থাকার জন্য ভ্যাকসিন দেয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ফাইল ছবি

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, যারা ভ্যাকসিন নিয়ে বিদ্রুপ করেছে, তাদেরকেও ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আমরা চাই, তারা বেঁচে থাকুক, বেঁচে থেকে সরকারের সমালোচনা ও বিদ্রুপ করুক।

বুধবার বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে কোভিড-১৯ টিকা দেওয়া কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে একথা বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা আগে ভ্যাকসিন নিয়ে নিলে মানুষ বলবে, আমরা তাদেরকে দিলাম না। আমরা আগে তাদের দেই। তারপর সবার দেওয়া শেষ হলে আমি নেবো।

তিনি বলেন, পৃথিবীতে যতগুলো ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়েছে, ভারতের এই ভ্যাকসিন সবচেয়ে ভালো, এটা প্রমাণিত হয়েছে। এটার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

জাহিদ মালেক বলেন, আজ খুবই আনন্দিত। বহুল প্রতীক্ষিত ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীও খুবই আনন্দিত। তিনি বলেন, ভ্যাকসিন অভাব হবে না। ৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। যারা ভ্যাকসিন নেবেন, তারা নিবন্ধন করবেন। কোনো সমস্যা দেখা হলে চিকিৎসা দেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪০
প্রিন্ট করুন printer

এসএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস বাতিল করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

এসএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস বাতিল করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এসএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রত্যাহার করা হবে। আগামী ৭-৮ ফেব্রুয়ারি নতুন সিলেবাস দেয়া হবে। এসএসসির ক্ষেত্রে ৬০ দিন আর এইচএসসির ক্ষেত্রে ৮৪ দিনে যতটুকু পড়ানো হবে ততটুকুর মধ্যেই পরীক্ষা হবে। আশা করি ছাত্র-ছাত্রীরা এই সময়টা মন দিয়ে পড়বে।

বুধবার দুপুরে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে এনসিটিবি ভবনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

দীপু মনি বলেন, স্কুল-কলেজ খোলার পর টেস্ট, প্রি টেস্ট, মক টেস্ট, মডেল টেস্ট কোনো নামেই এখন কোনো পরীক্ষা নিতে পারবে না। এখন শুধু ক্লাস হবে। ক্লাসে শ্রেণি শিক্ষক পরীক্ষা নিতে পারবেন। এর জন্য কোনো ফি নেয়া যাবে না। এরপরও যদি কোনো শিক্ষক টেস্ট পরীক্ষা নিতে চায়, তখন আমরা অবস্থা দেখে প্রয়োজনে নতুন সিদ্ধান্ত দেব। 

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের এনসিটিবির যে সংক্ষিপ্ত সিলেবাস তৈরি করেছিল, তা নিয়ে বিতর্ক আছে। অভিভাবকদের পক্ষ থেকেও বিষয়টি নিয়ে আপত্তি জানানো হয়েছিল।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর