শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ১৩:৩৪
আপডেট : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ১৯:০২

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের মামলা; হাজী সেলিমের ছেলেকে হেফাজতে নিয়েছে র‍্যাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের মামলা; হাজী সেলিমের ছেলেকে হেফাজতে নিয়েছে র‍্যাব
হাজী সেলিমের ছেলে মোহাম্মদ ইরফান সেলিম। ফাইল ছবি

রাজধানীর ধানমন্ডিতে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় সাংসদ হাজী সেলিমের ছেলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে হেফাজতে নিয়েছে র‌্যাব। আজ সোমবার দুপুরের দিকে হাজী সেলিমের বাসা থেকে তার ছেলে ইরফান সেলিমকে হেফাজতে নেওয়া হয়। ইরফান সেলিমের দেহরক্ষী জাহিদকেও হেফাজতে নিয়েছে র‌্যাব।

তবে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেছেন, র‍্যাব-১০ লালবাগে হাজী সেলিমের বাসায় তল্লাশি চালাচ্ছে। তবে ইরফান সেলিমকে এখনো গ্রেফতার দেখানো হয়নি। অফিসিয়ালি পরে জানানো হবে।

আরও পড়ুন: নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: হাজী সেলিমের ছেলেসহ চারজনের নামে মামলা

এর আগে সকালে র‌্যাবের একটি দল হাজী সেলিমের ছেলেকে গ্রেফতার করতে তার বাসায় তল্লাশি চালায়। তার আগে সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান জানিয়েছিলেন, হাজী সেলিমের ছেলে মোহাম্মদ এরফান সেলিমসহ এজাহারভুক্ত আসামিদের খুঁজছে পুলিশ।

সোমবার ভোরে ভুক্তভোগী নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম নিজেই বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় সেলিমসহ চারজনের নামে মামলা দায়ের করেন। 

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকরাম আলী মিয়া জানান, এই মামলায় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম (৩৭), তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ (৩৫), হাজী সেলিমের মদীনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দিপু (৪৫), গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ (৩০) অজ্ঞাতপরিচয়ের দুই/তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।

রমনা ডিভিশনের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, এ ঘটনায় ভিকটিম নিজেই বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় চারজনের নাম আছে। বাকি কয়েকজন অজ্ঞাতপরিচয়ের। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর