Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ১০:০৭

কানাডায় প্রবাসীদের ঈদ উদযাপন

আহসান রাজীব বুলবুল, কানাডা

কানাডায় প্রবাসীদের ঈদ উদযাপন

কানাডার আলবার্তার ক্যালগেরির বিভিন্ন স্থানে ঈদুল আজহা উদাযাপিত হয়েছে। প্রবাস জীবনের যান্ত্রিকতাময় এই ঈদের দিনে প্রবাসী বাঙালিরা মিলিত হয় একে অপরের সাথে। পরিণত হয় মিলনমেলায়। 

কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশিরা ঈদের নামাজ শেষে চলে যান কোরবানি দিতে। কানাডায় নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানি দেয়া বাধ্যতামূলক। নির্ধারিত ফার্মগুলোতেই কোরবানি দিয়েছেন প্রবাসীরা। ঈদের দিন কানাডায় কারো কারো থাকে কর্ম দিবস। তবু খুব ভোরে নতুন পোশাক পরে আগেভাগে বেরিয়ে পড়েন ঈদের নামাজ পড়তে। মসজিদে নামাজ শেষে পরিবার পরিজন নিয়ে বের হন ঘুরতে বন্ধু বান্ধব ও আত্মীয় স্বজনের বাসায়। সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সবাই একত্রিত হয়ে মেতে উঠেন নানা গল্প আড্ডায়। 

ক্যালগেরির মতই অটোয়া, টরেন্টো, মনট্রিলসহ কানাডা জুড়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ঈদ উদযাপন করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ঈদের দিনের এই আড্ডার পাশাপাশি চলে ঈদ উপলক্ষে নানা সুস্বাদু খাবার। বিরিয়ানি, পোলাও, কোর্মা, মাংসের চপ, রোস্ট, জর্দা আর গৃহবধূদের নিজ হাতের তৈরি দইসহ নানামাত্রিক রান্না করা খাবার। থাকছে মধু মাসের মধু ফল আমও। 

এই মহামিলনের পাশাপাশি প্রবাস থেকে দেশের আত্মীয় স্বজনের সঙ্গেও চলে টেলিফোনে আলাপচারিতা। এই আলাপে কারো কারো চোখ ভেসে আসে জলে। আর এই অশ্রুসিক্ত নয়নে থাকে দেশে একসাথে ঈদ না করতে পারার আক্ষেপ। 

এবিএম কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট ড. মো. বাতেন বললেন, বাংলাদেশের মত আনন্দ করে এখানে ঈদ হয় না। প্রবাসে আমরা প্রবাসী বাঙালিরা একে অপরের বাড়িতে যাই শুভেচ্ছা বিনিময় করি।স্মরণ করি দেশের সেই সময়ের স্মৃতি। আমাদের নতুন প্রজন্মের অনেকেই আমাদের সময়কার সেই ঈদের আনন্দ বুঝতেই পারবে না। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা।

ঈদের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে ক্যালগেরির ফ্যামেলি ফিজিশিয়ান ডা. মো. জাকির হোসেন বলেন, খুব মিস করি শৈশবের সেই আনন্দের ঈদকে। সেই দিন সময় আর কখনোই ফিরে পাবার নয়। ব্যস্ততাময় এই প্রবাস জীবনে পরিবার আর বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে যদিও ঈদ করি, কিন্তু সেই সময়ের ঈদ এখন কেবলই স্মৃতি।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য