শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:২৪

দ্বিতীয় সেমিফাইনাল আজ

মালদ্বীপ-নেপাল মুখোমুখি

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মালদ্বীপ-নেপাল মুখোমুখি

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে এই প্রথম মুখোমুখি হচ্ছে মালদ্বীপ ও নেপাল। তবে সার্ক অঞ্চলে দুই দলই একে অপরের চেনা প্রতিপক্ষ। আজ তারা সেমিফাইনালে লড়বে। বিকাল সাড়ে পাঁচটায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে। চ্যানেল নাইন সরাসরি এ খেলা সম্প্রচার করবে। সেমিতে লক্ষ্য থাকে একটাই ফাইনালে ওঠা। যারা জিতবে ২২ জানুয়ারি টুর্নামেন্টে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে লড়বে। কে জিতবে ম্যাচ? নামে মালদ্বীপ ও নেপাল হলেও প্রকৃতপক্ষে কেউ জাতীয় দল নিয়ে খেলতে আসেনি। তরুণদের প্রাধান্য দিয়েই দল গড়েছে। কারণ এখান থেকে বাছাই করে এসএ গেমসে দল গড়বে তারা। এসএ গেমস অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবলারদের মধ্যে সীমাবদ্ধ। আন্তর্জাতিক ফুটবলে দুই দলের বড় কোনো সাফল্য নেই। কিন্তু ট্রফি জেতার কৃতিত্ব রয়েছে তাদের। এসএ গেমসে (আগে সাফ) ফুটবল ইভেন্টে প্রথম সোনা জেতার কৃতিত্ব রয়েছে নেপালেরই। ১৯৮৪ সালে কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত প্রথম সাফ গেমসে ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে সোনা জিতেছিল নেপাল। ১৯৯৩ সালে ঢাকায় সাফ গেমসেও তারা সোনা জিতে। মালদ্বীপের আবার রয়েছে সাফ ফুটবলে ট্রফি জেতার কৃতিত্ব।

দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে মালদ্বীপ বা নেপালের শক্তি অস্বীকার করা যাবে না। এবার মালদ্বীপ সাফে সেমিফাইনাল খেললেও নেপাল গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে। অনেক দিন পর দুই দলের ফাইনালে খেলার সুযোগ এসেছে। কিন্তু ফাইনালে খেলবে কে মালদ্বীপ না নেপাল। মালদ্বীপ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর নেপাল রানার্সআপ হয়ে সেমিতে লড়বে। রবিবার সংবাদ সম্মেলনে দুই দল বলেছে লক্ষ্য একটাই ফাইনাল। তবে এই পথে আসতে হলে ভালো খেলতে হবে। নেপাল অধিনায়ক মহারাজন বলেন, মালদ্বীপ অবশ্যই শক্তিশালী। গ্রুপ পর্বে তারা দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করেছে। এই দলের বিরুদ্ধে জিততে হলে সেরা পারফরম্যান্সই শো করতে হবে। কোচ গোপাল মহারাজন বলেন, গ্রুপে নেপাল একটা জয় পেলেও পারফরম্যান্স একেবারে খারাপ ছিল না। আশা রাখি ছেলেরা সেমিতে পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে এবং জয় নিয়ে মাঠ ছাড়বে। মালদ্বীপের কোচ রিকি হার্বাট বলেন, ম্যাচটা নক আউটের। হারলেই বিদায়। টেনশনপূর্ণ ম্যাচে যারা বুঝে শুনে খেলবে তারাই জয় পাবে।


আপনার মন্তব্য