শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:৩৪

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের তিন আফ্রিকান দল

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের তিন আফ্রিকান দল

২৮ হাজার বর্গকিলোমিটারের ছোট্ট দেশ বুরুন্ডি। পূর্ব আফ্রিকার দেশটির জনসংখ্যা সোয়া কোটি এবং রাজধানী বুজুম্বুরা। আফ্রিকান ফুটবলে নিয়মিত খেললেও কখনো বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব টপকাতে পারেনি। ‘সোয়ালো’ নামে পরিচিতি দেশটি আফ্রিকান নেশনস কাপের চূড়ান্ত পর্বেও খেলেনি এখনো। আফ্রিকান ফুটবলের মাঝারি সারির দলটি সর্বশেষ খেলেছে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে তানজানিয়ার বিপক্ষে। দুই লেগের ম্যাচে ড্র করেছে যথাক্রমে ১-১ ও ২-২ গোলে। আফ্রিকান ফুটবলে পারফরম্যান্স যেমনই হোক, প্যালেস্টাইন থাকার পরও বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের অন্যতম ফেবারিট। দলটির মূল তারকা অধিনায়ক সাদিও বেরাহিনো। দেশটির পক্ষে সবচেয়ে বেশি ১৯ গোল করেছেন ফিস্টন আবদুল রাজ্জাক। গোল্ড কাপের লিগ পর্বে দলটির প্রতিপক্ষ দুই আফ্রিকান প্রতিনিধি মরিসাস ও সিশেলস।

ভারত মহাসাগরীয় একটি ‘দ্বীপরাষ্ট্র’ মরিসাস। আফ্রিকান দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ধনী দেশটির মূল আয় পর্যটন। বহুজাতিক ও বহু সংস্কৃতির দেশটির আরেক নাম বিলুপ্ত পাখির নামে ‘দ্য ‘ডডোস’। আফ্রিকান ফুটবলের তলানির দেশটি কখনোই বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব টপকাতে পারেনি। তবে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১৭২ নম্বর দেশটির সবচেয়ে বড় সাফল্য ১৯৭৪ সালে আফ্রিকান নেশনস কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলা। দেশটির সবচেয়ে বড় তারকা জিমি চুন্দাসামি খেলেছেন ৫৪ ম্যাচ। দেশের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ১১ গোল করেছেন অ্যান্ডি সোফি। নিচের দিকের দেশটি সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে মোজাম্বিকের বিপক্ষে। দুই লেগেই হেরেছে ০-১ ও ০-২ গোলে। পর্যটন শাসিত দেশটি ফেবারিট নয় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে।

১১৫টি ছোট ছোট দ্বীপ নিয়ে সিশেলস একটি দ্বীপরাষ্ট্র। ব্রিটিশ উপনিবেশটির লোকসংখ্যা মাত্র এক লাখ। পর্যটনশাসিত দেশটি ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ২০০ নম্বরে। সাফল্য নেই বললেই চলে। তবে ফুটবলে দেশটির সেরা সাফল্য ২০০৪ সালের আফ্রিকান নেশনস কাপের বাছাইপর্ব। শক্তিশালী জিম্বাবুয়েকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল রাজধানী ভিক্টোরিয়ার সেন্ট লিন্টে স্টেডিয়ামে। এ ছাড়া বিশ্বকাপ ফুটবলে বাছাইপর্বে ১৬ ম্যাচে সাফল্য সাকল্যে দুই ড্র। ২০০৬ সালের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রথম লেগে জাম্বিয়ার কাছে ৪-০ গোলের হারের পর ঘরের মাঠে ড্র করেছিল ১-১ গোলে। নামিবিয়ার সঙ্গেও ড্র করেছিল ১-১ গোলে। দেশটির সবচেয়ে বড় তারকা গারভেস ওয়েই হিভ খেলেছেন ৩৬ ম্যাচ। সবচেয়ে বেশি গোল ফিলিপ জিয়ালোরের ১১টি।


আপনার মন্তব্য