শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:২২

বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বুরুন্ডি

ফাইনালে চোখ জামালদের

‘আমরা জিতব আশা করি। র‌্যাঙ্কিং নিয়ে খুব বেশি ভাবছি না। এটা কেবলই একটা সংখ্যা। ম্যাচের দিন যারা ভালো ফুটবল উপহার দেবে তারাই জিতবে।’

রাশেদুর রহমান

ফাইনালে চোখ জামালদের
ছবি : রোহেত রাজীব

দৃশ্য দুটো পুরোপুরিই ভিন্ন। একটিতে অপরিকল্পিত ফুটবলের ছবি ভেসে উঠেছিল। যেখানে ফিলিস্তিন বাজে ফুটবল খেলেও ২-০ গোলে হারিয়ে দেয় বাংলাদেশকে। ঠিক চারদিন পর যেন সম্পূর্ণ ভিন্ন এক দল নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সুসংগঠিত ফুটবল খেলল লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। ‘ম্যাজিক মোমেন্ট’ উপহার দিল দর্শকদের। প্রতিপক্ষের জালে তিনটি গোল করে আপাতত স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলল বাংলাদেশের ফুটবল। কিন্তু স্বস্তি যে খুব বেশিদিনের নয় তাও জানা ছিল কোচ জেমি ডের। এ কারণেই তড়িঘড়ি শিষ্যদের প্রস্তুত করতে ওঠে পড়ে লেগে যান তিনি। নিবিড় পরিচর্যা শুরু করেন শিষ্যদের। এবার যে প্রতিপক্ষ আরও ভয়ঙ্কর। আরও কঠিন। চ্যালেঞ্জটা কেবল ফাইনাল খেলা নিয়ে নয়। বরং নিজেদের চেয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩৬ ধাপ এগিয়ে থাকা এক দলের বিপক্ষে জয়ের চ্যালেঞ্জ (ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ১৮৭ ও বুরুন্ডি ১৫১)। অবশ্য এই চ্যালেঞ্জটা নিতে প্রস্তুত জামাল ভূঁইয়ারা। ফাইনালে চোখ রেখেই আজ বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আফ্রিকান দল বুরুন্ডির বিপক্ষে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনাল খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

বুরুন্ডি আফ্রিকান ফুটবলের এক উঠতি শক্তি। গত বছর তারা প্রথমবারের মতো আফ্রিকান নেশন্স কাপ খেলেছে। সেখানে নাইজেরিয়ার মতো দলের বিপক্ষে শক্তির পরীক্ষা দিয়েছে তারা। তাছাড়া পূর্ব আফ্রিকান অঞ্চলের টুর্নামেন্ট সিকাফা কাপে বেশ দাপটের সঙ্গেই খেলে থাকে দলটা। আফ্রিকান অঞ্চলের এই উঠতি ফুটবল শক্তি আজ বাংলাদেশকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানিয়েই মাঠে নামছে। গতকাল বাফুফে ভবনে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে কিরুন্ডি ভাষায় নিজেদের প্রস্তুতির কথা জানালেন কোচ যোসলিন বিফুবুসা এবং অধিনায়ক তামবু। তাদের বক্তব্য আধো আধো ইংরেজিতে অনুবাদ করে দিলেন ম্যানেজার কনস্টাটিন মুতিমা। কোচ বললেন, ‘আমরা ফাইনাল খেলার লক্ষ্য পূরণ করতেই মাঠে নামব কাল (আজ)।’ তিনি অবশ্য বাংলাদেশের শক্তি সম্পর্কেও পূর্ণ সচেতন। ‘আমরা জানি বাংলাদেশ হোম টিম। তবে এই ধরনের অবস্থা আমরা আগেও সামলেয়েছি। আশা করি খুব একটা সমস্যা হবে না।’ অধিনায়ক তামবু সরাসরি বলে দিলেন, ‘আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নামব।’

বুরুন্ডি আক্রমণাত্মক ফরমেশনে দল সাজিয়ে খেলতে নামে। মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণটা সহজে ছাড়তে চায় না তারা। বুরুন্ডির গত দুই ম্যাচে খেলা দেখে অনেক কিছুই বুঝে নিয়েছেন কোচ জেমি যে। জামাল ভূঁইয়ারা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছেন। বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক জামাল বলছেন, ‘আমরা মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের কাছেই রাখতে চাই। জিততে হলে ওদের সাপ্লাই লাইন কেটে দিতে হবে। এজন্য মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণ খুব জরুরি।’ মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণ রাখার কোনো বিকল্পও নেই বাংলাদেশের। তপু বর্মণ আর ইয়াসিন খানকে ছাড়াই ডিফেন্স লাইন সাজাতে হবে বাংলাদেশকে। অসুস্থতার কারণে দলে নেই ইয়াসিন। আর গত ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় দলে নেই তপু। প্রতিপক্ষ সম্পর্কে বেশ সচেতন কোচ জেমি ডেও। এ কারণেই নিজেদেরকে স্পষ্টভাবে ফেবারিট বলতে রাজি নন তিনি। ইংলিশ এ কোচ বলেন, ‘বুরুন্ডি আমাদের চেয়ে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে অনেকটা এগিয়ে আছে। তবে আমরা ভালো ফলাফল করার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামব।’ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া অবশ্য কোচের মতো নন। তিনি নির্ভার হয়েই বললেন, ‘আমরা জিতব আশা করি। র‌্যাঙ্কিং নিয়ে খুব বেশি ভাবছি না। এটা কেবলই একটা সংখ্যা। ম্যাচের দিন যারা ভালো ফুটবল উপহার দিবে তারাই জিতবে।’


আপনার মন্তব্য