শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ মে, ২০২০ ০০:১১

বিশ্বকাপেই অবসর নিতে চেয়েছিলেন মাশরাফি

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বিশ্বকাপেই অবসর নিতে চেয়েছিলেন মাশরাফি

দেশের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক। সবচেয়ে সাহসী ক্রিকেটার। সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেটারও। মাশরাফি বিন মর্তুজা; কিছুদিন আগে ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন। তবে বিদায় জানাননি ওয়ানডে ক্রিকেটকে। এখনো দেশের পক্ষে খেলার স্বপ্ন দেখেন। যদিও টাইগারদের বোলিং কোচ ওটিস গিবসন মাশরাফিকে অবসর নিতে বলেছেন। কিন্তু দেশসেরা পেসার রাজি নন। তার অবসর নেওয়া ও না নেওয়ার উভয় পক্ষেই জনমত রয়েছে। তার অবসর নিয়ে নানামুখী কথা বাজারে ভেসে বেড়াচ্ছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে যখন তার পারফরম্যান্স ছিল যাচ্ছেতাই, তখন সবাই সমালোচনা করেছিলেন কেন তিনি অবসর নেননি। গত এক বছর এ নিয়ে কোনো উচ্চবাচ্য করেননি। এবার ইউটিউব চ্যানেলে ‘নট আউট’ নোমানে অবসর নিয়ে কথা বলেছেন। চ্যালেঞ্জ দিয়ে জানিয়েছেন, তিনি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সময়ই অবসর নিতে চেয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, তিনি বিসিবি কর্মকর্তাদের মন্তব্যে কষ্ট পেয়েছেন, ড্রেসিং রুমে মিথ্যাচার করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন। অবসর নেননি বোর্ড কর্মকর্তাদের নানাধরনের মন্তব্যে বিরক্ত হয়ে। গত পরশু নট আউট নোমানে পরিষ্কার করেই অবসর নিয়ে বলেছেন, ‘বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে আমি অবসর নিতে চেয়েছিলাম। এটা যদি কেউ অস্বীকার করতে পারে, এমনকি ক্রিকেট বোর্ডের কেউ অস্বীকার করেন, তাহলে আমার সঙ্গে লাইভে কথা বলুন। আমি শেষ ম্যাচেই অবসর নিতে চেয়েছিলাম। তখন এমন একটা কথা এসেছিল যে, এভাবে না হোক, সুন্দরভাবে হোক  অবসর। আমি চাইনি একটি ম্যাচের জন্য ২ কোটি টাকা খরচ করে অবসরের ব্যবস্থা করতে।’

ক্রিকেটারদের আন্দোলনে নিজের না থাকার বিষয়ে বলেন, ‘সেদিন অনেকেম ড্রেসিং রুমে বলেছিলেন, মাশরাফি সরকার দলীয় এমপি। তিনি আন্দোলনে আসবেন না। এটা কি রাজনৈতিক আন্দোলন, যে আমি আসবো না। সত্যি হলো আমাকে পাশ কাটিয়েই আন্দোলনটি করা হয়েছিল।

 


আপনার মন্তব্য