শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১২:১৯

যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল

আগ্রাসন দেখাতে মাঠে খারাপ ভাষা নয়: শচীন টেন্ডুলকার

অনলাইন ডেস্ক

আগ্রাসন দেখাতে মাঠে খারাপ ভাষা নয়: শচীন টেন্ডুলকার

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনাল ছিল বেশ উপভোগ্য। ভারতকে হারিয়ে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। পুরস্কার বিতরণ সবকিছুই ভালোভাবে চলছিল। কিন্তু হঠাৎ করে দুই দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। যদিও পুরো ফাইনাল ম্যাচজুড়েই দুই দলের ক্রিকেটাররাই একে অন্যকে স্লেজিং করে গেছেন। ম্যাচ শেষে তো হাতাহাতি লেগে যায় দুই দলের মাঝে। বাংলাদেশের পতাকা কেড়ে নিয়েছিল ভারতীয় যুবারা!

এদিকে, যুব বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষে রবি বিষ্ণোইদের আচরণে অসন্তুষ্ট ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার। তাঁর মতে, আগ্রাসন দেখানোর জন্য খারাপ ভাষা প্রয়োগ করার দরকার নেই।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল নিয়ে হতাশা গোপন করেননি ‘মাস্টার ব্লাস্টার’। তিনি বলেন, ‘‘একজনকে শেখানোর চেষ্টা করাই যায়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি সেই শিক্ষা কীভাবে নেবে, তা তার উপরেই নির্ভর করে। কঠিন মুহূর্তে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। ভুলে গেলে চলবে না, সারা বিশ্ব তাকিয়ে রয়েছে তোমার দিকে। আগ্রাসী হওয়া উচিত, কিন্তু তার জন্য খারাপ ভাষা প্রয়োগ করার দরকার নেই।’’

নিজের দীর্ঘ ক্রিকেট জীবনে শচীনকে কোনদিন মাঠের ভিতরে ঝামেলায় জড়াতে দেখা যায়নি। ‘মাস্টার’কে স্লেজিং করলেও ব্যাটেই তাদের জবাব দিয়েছেন শচীন।

তিনি বলছেন, ‘‘ব্যাট বা বল করার সময়ে আগ্রাসন দেখাতেই পারো। কিন্তু তা যেন কখনও দলের বিরুদ্ধে না যায়। ম্যাচ জিততে সবাই চায়। রজার ফেদেরার কি জিততে চায় না? ও কি আগ্রাসী নয়? প্রতিটি পয়েন্ট জিততে মরিয়া থাকে ফেদেরার। কোর্টের ভিতরে ওর শরীরী ভাষা উদাহরণ হয়ে ওঠে।’’      


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য