শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ মে, ২০২০ ১৪:০১

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় জেটিআই বাংলাদেশ'র উদ্যোগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় জেটিআই বাংলাদেশ'র উদ্যোগ

সারা দেশে ৬০ হাজারেরও অধিক মানুষের কাছে সহায়তা পৌঁছে দিয়েছে জাপান টোব্যাকো ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ। কোভিড-১৯ মোকাবেলায় অসহায় মানুষকে প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী সরবরাহের পাশাপাশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে থাকা ফ্রন্টলাইন কর্মীদের জন্য স্বাস্থ্য উপকরণ প্রদানের জন্য একটি বিশেষ তহবিল গঠন করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পানির ব্যবস্থা, স্যানিটেশন এবং স্বাস্থ্যসুরক্ষা বিষয়ক জেটিআই ফাউন্ডেশনের চলমান দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্পের বর্ধিত অংশ এসব উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

জাপান টোব্যাকো ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর জেনারেল ম্যানেজার নীল কুপল্যান্ড বলেন, “আমরা কমিউনিটিকে সহায়তা করার জন্য যেসকল কাজ করে থাকি, সেগুলো মূলত পার্টনারশিপ প্রোগ্রামের মাধ্যমে তহবিল গঠন এবং আমাদের কর্মীদের স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রমের সমন্বয়ে হয়ে থাকে। জেটিআই-এর কর্মীদের জন্য সমাজের জন্য কিছু করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোর মধ্যে একটি। দেশে নানান সময়ে ঘটে যাওয়া দুর্যোগের কারণে যেসব মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের জীবন-মান উন্নতির জন্য জেটিআই ফাউন্ডেশন প্রায় দুই দশক ধরে কাজ করে যাচ্ছে। ফলে অনেক সহযোগী অংশীদারদের আমাদের বহুমুখী সব প্রকল্পের আওতায় প্রাকৃতিক এবং মনুষ্য সৃষ্ট বিভিন্ন দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে আমরা নানা কর্মসূচির মাধ্যমে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছি, যা থেকে হাজারো মানুষ উপকৃত হয়েছে। ঠিক আবারও এখন সময় এসেছে, সংকটের এই দিনে দেশের দুস্থ ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এবং তাদেরকে সহায়তা করার।”

প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম পরিচালিত হয় এমন এলাকার সুবিধাবঞ্চিত ও ঝুঁকিতে থাকা মানুষদের মাঝে দ্রুত ও সঠিক বন্টন নিশ্চিত করার জন্য এসকল জরুরি সেবা সরাসরি জেলা প্রশাসন, পুলিশ কর্তৃপক্ষ ও অংশীদার দাতব্য সংস্থার মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

সুইসকন্ট্যাক্ট বাংলাদেশ, ওয়াটার অ্যান্ড লাইফ বাংলাদেশ (সবার জন্য পানি), “মিশন সেভ বাংলাদেশ” এবং দ্য ফরেন ইনভেস্টর্স চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফআইসিসিআই) এর বিভিন্ন জরুরি ত্রাণ সহায়তা উদ্যোগের সাথে কাজ করে যাচ্ছে জাপান টোব্যকো ইনটারন্যাশনাল বাংলাদেশ।

সুইসকন্ট্যাক্ট বাংলাদেশ ও ওয়াটার অ্যান্ড লাইফ বাংলাদেশ এর অংশীদারিত্বে তহবিল প্রদান করেছে জেটিআই এসএ’র মালিকানাধীন দাতব্য সংগঠন জেটিআই ফাউন্ডেশন।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য