Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬ ২৩:২৩
প্রকৃতি
অতিথি পাখির দল রামরাই দিঘিতে
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
অতিথি পাখির দল রামরাই দিঘিতে

রানীশংকৈলের রামরাই দিঘি এখন রংবেরঙের সাইবেরীয় পাখিতে ভরপুর। ঝাঁকে ঝাঁকে এসেছে অতিথি পাখির দল। ফলে পুরো দিঘি এলাকায় বিরাজ করছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ভিন্ন আমেজ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গেই রামরাই দিঘির পাড়জুড়ে থাকা গাছগাছালিতে হাজার হাজার পাখি আশ্রয় নিচ্ছে। দিনের বেলা কলকাকলিতে মাতিয়ে রাখছে দিঘি। পাখি দেখতে প্রতিদিনই দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছেন মানুষ। পাখিপ্রেমীরা এ নিয়ে নানা বিচার-বিশ্লেষণ করছেন। ওয়াকেবহাল সূত্র জানায়, প্রতি বছরই শীতের শুরুতে হাজার হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে এই সবুজ-সুন্দর দেশে আসে ঝাঁকে ঝাঁকে বাহারি পাখি। প্রচণ্ড শীতের দেশ সুদূর সাইবেরিয়া। পাখিরা শীত থেকে রেহাই পেতে অভয়াশ্রম হিসেবে বেছে নেয় বাংলাদেশকে। সেই হিসাবে নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে এরা রামরাই দিঘিকেও বেছে নিয়েছে। এলাকার বাসিন্দা আবদুস সালাম জানান, সারা দিন অনেক মানুষ আসেন এসব পাখি দেখতে। পাখির কলকাকলিতে এখন মুখর হয়ে আছে রামরাই দিঘি। আমরা এলাকাবাসী সজাগ আছি কেউ যেন এদের শিকার করতে না পারে।  ঠাকুরগাঁওয়ের পাখিপ্রেমী রেজাউল হাফিজ রাহী জানান, এখানে যে অতিথি পাখি এসেছে তার নাম ছোট সরালি। এরা যাতে নির্ভয়ে থাকতে পারে তার জন্য প্রশাসনকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অতিথি পাখির আগমনে এলাকায় যেমন সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়, তেমনি প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায়ও ভূমিকা থাকে। ঠাকুরগাঁও জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, ছোট সরালি জাতের অতিথি পাখি আমাদের দেশে শীতকালেই আসে। এরা এখানে ডিম দেয়। এদের শিকার করা দণ্ডনীয় অপরাধ। তাই সবাইকে অতিথি পাখি শিকার না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow