শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

আশুলিয়ায় ছাত্রলীগ নেতাসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

সাভার প্রতিনিধি:

আশুলিয়ায় ছাত্রলীগ নেতাসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

সাভারের আশুলিয়ায় ইলেকট্রিশিয়ান শাহজাদা খন্দকার মনাকে (৫০) কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় আশুলিয়ার থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও যুবলীগ নেতাসহ ১৯ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে আশুলিয়ার ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকার শাহজাদা খন্দকার মনা নিজ বাড়ির পাশে সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে জখম হন। পরে গভীর রাতে সাভারে এনাম মেডিকেল  কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাতে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন নিহতের ভাই শাহাবুদ্দিন খন্দকার পিন্টু ও তার স্ত্রী আলেয়া বেগম। রাতে নিহতের ভাই আহত শাহাবুদ্দিন খন্দকার পিন্টু বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১২ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা আরও ৭ জনকে আসামি করা হয়েছে। 

আসামিরা হলেন আশুলিয়া থানার ডেন্ডাবর নতুন পাড়া এলাকার আলাউদ্দিন মিস্ত্রির ছেলে আল আমিন ওরফে বাবু মিজি (২৬), একই এলাকার জমির মোল্লার ছেলে নুরুজ্জামান (৩৫), শাহজাহানের ছেলে ও আশুলিয়া থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ টিটু (৩০), শাহজাহান সরকারের ছেলে ও আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ওরফে ছোট সাইফুল (৩৮) ও কবির হোসেনের ছেলে রনি (২৪), জয়পুরহাট জেলার সদর থানার রিপন হোসেনের ছেলে রকি (২১), নড়াইল জেলার নড়াগতি থানার খাশিয়াল গ্রামের গোলাম রসুলের ছেলে রেজাউল ইসলাম পারভেজ (১৯), মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার কচুয়া গ্রামের লিটনের ছেলে মেহেদী হাসান নাজমুল (২৫), একই জেলার সদর থানার ইসলামপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে যুবলীগকর্মী আরিফ (৩০) ও শিবালয় থানার তেওতা গ্রামের মৃত আক্তার হোসেনের ছেলে জুয়েল (৩০), টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর থানার সিনন্দীন গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে সুমন (২৫) ও একই জেলার দেলদুয়ার থানার নান্দুলিয়া গ্রামের মৃত আমির খানের ছেলে রাব্বী (১৯)। এরা আশুলিয়া থানার ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকার বর্তমান বাসিন্দা।
 
এদের মধ্যে জুয়েল, নুরুজ্জামান, মেহেদী হাসান নাজমুল ও রেজাউল ইসলাম পারভেজকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। 

আশুলিয়া থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম কামরুজামান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ছাত্রলীগ হোক আর যুবলীগ নেতাই হোক না কেন, তাদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে নিহতের ভাই শাহাবুদ্দিন খন্দকার পিন্টু। হত্যাকান্ডের ঘটনায় গ্রেফতার চারজনকে আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুল সাইদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, এ ঘটনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা নেবে।
 
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, অপরাধীর জায়গা বাংলাদেশ ছাত্রলীগে হবে না। অপকর্মে জড়িত থাকায় থানা ছাত্রলীগের  নেতাদেরও বহিষ্কার করা হবে। তাদের বিচার হচ্ছে। একটাই বার্তা- অপরাধ যে করবে তার পাশে ছাত্রলীগ থাকবে না। অপরাধী যেই হোক তাকে আইনের আওতায় আসতেই হবে। তার বিরুদ্ধে আমরাও গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, যারা এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধের সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর