শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:৩৩

‘ঠুনকো’ ঘটনায় নৃশংস খুন চট্টগ্রামে

কথা কাটাকাটি ঠাট্টা কিংবা মশকরাতেও হচ্ছে খুন

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

‘ঠুনকো’ ঘটনায় নৃশংস খুন চট্টগ্রামে

দোকানে বসা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় দুই বন্ধু শাহাদাত হোসেন ও ফরহাদুর রহমানের মধ্যে। একপর্যায়ে শাহাদাতের হাতে মারধরের শিকার হয় ফরহাদুর। এর প্রতিশোধ নিতে শাহাদাতকে ছুরিকাঘাত করে ফরহাদ। এতে শাহাদাতের মৃত্যু হয়। এটি ১৮ এপ্রিল নগরীর বায়েজীদ থানা এলাকায় ঘটে যাওয়া একটি ঘটনার খ- চিত্রমাত্র। এভাবে ‘ঠুনকো’ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নগরীতে ঘটছে একের পর এক খুন। কথা কাটাকাটি, ঠাট্টা কিংবা মশকরা করতে গিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ছে পরিচিতজনরা। এরপরই ঘটছে নৃশংস খুনের ঘটনা। সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন বলেন, ‘বাংলাদেশ দ্রুত কৃষি সমাজ থেকে শিল্প সমাজে রূপান্তরিত হচ্ছে। ফলে দ্রুতই নগরায়ণ ও শিল্প বিপ্লব ঘটছে। দ্রুত উন্নয়নের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে পারছে না অনেকে। ফলে মানুষের মাঝে সহনশীলতা কমে আসছে। তাই অল্পতেই ক্ষুব্ধ হওয়ার মানসিকতা তৈরি হচ্ছে। এতে অল্পতে রাগান্বিত হয়ে খুনের মতো জঘন্য ঘটনা সংঘটিত করছে।’ চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার মাহাবুবর রহমান বলেন, ‘সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে খুন হচ্ছে। বিষয়টি অবশ্যই অশনি সংকেত। এ ধরনের ঘটনা রোধ করতে সামাজিক ও পারিবারিক বন্ধন সুদৃঢ় করা জরুরি।’

১৪ এপ্রিল নেশার টাকা না পেয়ে নগরীর কোতোয়ালি থানা এলাকায় বাবা রঞ্জন বড়ুয়াকে খুন করে ছেলে। এ ঘটনায় ছেলে রবিন বড়ুয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ১৭ এপ্রিল নগরীর চান্দগাঁও থানা এলাকায় দ্বন্দ্বের জের ধরে ভাইয়ের হাতে খুন হন মো. সাজু নামে এক যুবক। ২৭ জানুয়ারি সীতাকুন্ডের বারৈয়াঢালা এলাকায় পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হন চা দোকানদার নুরুল ইসলাম। ২১ নভেম্বর প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীর মা শাহীনা বেগমকে কুপিয়ে হত্যা করেছে শাহজাহান নামে এক গৃহশিক্ষক। ৬ অক্টোবর নগরীর আকবর শাহ থানা এলাকায় বড় ভাইয়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি করায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় জয় দাশ সুজন নামে এক যুবককে। এ ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া আলী হোসেন তার ভাই নূরের সঙ্গে কথা কাটাকাটি করার ‘অপরাধে’ খুন করার কথা স্বীকার করে। ২৩ জুন বায়েজীদ থানাধীন বলেতলা এলাকায় ঠাট্টা-মশকরা করতে গিয়ে নাজমুল হোসেন সাগর ও বিপ্লব চন্দ নন্দী তর্কে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে বিপ্লবের ছোড়া কাঁচি পিঠে বিদ্ধ হয়ে মারা যান সাগর। ১৮ জুন বাকলিয়া থানাধীন ময়দার মিল এলাকায় ঋণের এক হাজার টাকা চাইতে গিয়ে বন্ধু মোবারক হোসেনের হাতে খুন হন জসিম উদ্দিন নামে এক তরুণ। ১৭ জুন নগরীর চট্টেশ্বরী মোড়ে উচ্চৈঃস্বরে হর্ণ দেওয়াকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবক অনিক ও মহিউদ্দিন তুষারের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে তুষার ও তার কয়েকজন বন্ধু ছুরিকাঘাত করে খুন করে অনিককে। ২১ মে নগরীর চান্দগাঁও থানার কামাল বাজার এলাকায় জিমে কথা কাটাকাটির জের ধরে প্রকাশ্যে জবাই করে হত্যা করা হয় মো. আরাফাত নামে এক যুবককে। এ ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া আরমান স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে জিম খোলা নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে আরাফাতকে খুন করার কথা স্বীকার করেন। ২২ মে মোহরা ইস্পাহানি শ্রমিক কলোনিতে কথা কাটাকাটির জের ধরে জবাই করে হত্যা করা হয় আরাফাত নামে এক যুবককে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর