Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ জুন, ২০১৯ ০২:০৮

দশ বছরে সড়কে প্রাণ গেল ২৫ হাজার ৫২৬ জনের

সংসদে তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক

দশ বছরে সড়কে প্রাণ গেল ২৫ হাজার ৫২৬ জনের

গত দশ বছরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৫ হাজার ৫২৬ জন। এ ছাড়া ১৯ হাজার ৭৬৩ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান। ২০০৯ সাল  থেকে ২০১৯ সালের মে মাস পর্যন্ত সময়ে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। অপর এক প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে বিআরটিএ ও এক্সিডেন্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট বুয়েট কতিপয় কারণ নির্ণয় করেছে। এর মধ্যে রয়েছে- পথচারীসহ সড়ক ব্যবহারকারীদের যথাযথ সচেতনতার অভাব, যানবাহনের চালকদের দক্ষতার অভাব। আইন অমান্য করার প্রবণতা ও আইনের যথাযথ প্রয়োগের অভাব। সড়ক দুর্ঘটনায় যে মানুষ মারা যাচ্ছে তার উল্লেখযোগ্য কারণ হচ্ছে ওভারলোডিং, ওভারটেকিং, যান্ত্রিক ত্রুটি, যাত্রীদের   অসচেতনতা, চালকদের ট্রাফিক সাইন না মানা, একনাগাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বেশি গাড়ি চালানো।

যাত্রী হয়রানির অভিযোগে ৬৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা জরিমানা : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাসে যাত্রীদের হয়রানির হাত থেকে রক্ষা ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে কর্মরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা নিয়মিতভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আসছেন। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে (৩১ মে থেকে/২০১৯ পর্যন্ত) ভ্রাম্যমাণ আদালত ৩৩ হাজার ৩০৫টি মামলার মাধ্যমে ৬৩ কোটি ২৬ লাখ দুই হাজার আটশ বিশ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এ ছাড়া ১৯৫টি গাড়ি ডাম্পিং স্টেশনে এবং ৫৫৮ জন আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ  প্রদান করা হয়েছে। গতকাল জাতীয় সংসদে এমপি হাজী মো.  সেলিম (ঢাকা-৭) এর লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

এম আবদুল লতিফ (চট্টগ্রাম-১১) এর প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশে গণপরিবহন শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা নানামুখী পদক্ষেপের সঙ্গে সঙ্গে বিআরটিসির মাধ্যমে ভারতীয় লাইন অব  ক্রেডিটের আওতায় বিআরটিসির জন্য ৩০০ দ্বিতল, ১০০ একতলা নন এসি বাস, ১০০ একতলা এসি (সিটি) বাস এবং ১০০ একতলা (ইন্টারসিটি) গাড়ি আমদানির লক্ষ্যে ভারতীয় দুটি গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

যার ভিত্তিতে ভারত হতে বাস আমদানির কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে। চলতি বছরে ৬ জুন পর্যন্ত ২৬৬টি বাস বিআরটিসি বহরে যুক্ত হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে আগামী জুলাইয়ের মধ্যে বাকি বাসগুলো বিআরটিসি বহরে যুক্ত হবে। এ ছাড়া যানজট নিরসনের লক্ষ্যে ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি ব্যবহারকে নিরুৎসাহিত করার জন্য আরও ২১০০টি নন এসি স্কুল বাস, ২০০টি একতলা এসি বাস এবং ২০০টি একতলা এসি সিটি বাস সংগ্রহের পরিকল্পনা রয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর