শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০৯

ছুটির দিন জমজমাট ফার্নিচার মেলা

আজ মেলার শেষ দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

ছুটির দিন জমজমাট ফার্নিচার মেলা

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে গতকাল জমে উঠেছে জাতীয় ফার্নিচার মেলা। এদিন আগ্রহী দর্শনার্থী ও ক্রেতার সমাগমে মুখরিত হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ। বিকালে বৃষ্টি উপেক্ষা করেই পছন্দের আসবাবপত্র সংগ্রহে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ছুটে আসেন ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায়। একই ছাদের নিচে আধুনিক নকশার আসবাবপত্র ক্রয়ে ক্ষেত্রবিশেষে সর্বোচ্চ ২০ শতাংশ নগদ ছাড়ের ব্যবস্থা থাকায় মেলা থেকে আসবাবপত্র ক্রয়ে আগ্রহীদের কাছ থেকে ভালো সাড়া পাওয়া যায়। গতকাল ছিল ১৬তম ফার্নিচার মেলার চতুর্থ দিন। বিক্রেতারা আশা করছেন আজ শেষ দিনে মেলায় ক্রেতাসমাগম আরও বাড়বে। গতকাল মেলা প্রাঙ্গণে বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা হলে তারা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, ছুটির দিন হওয়ায় সকাল থেকেই ক্রেতার উপস্থিতি ভালো ছিল। বিশেষ করে বিকালে বৃষ্টির পর সবচেয়ে     বেশি দর্শক ও ক্রেতা মেলায় হাজির হন। আগতদের অনেককেই ফার্নিচারের দরদাম সম্পর্কে খোঁজ নিতে দেখা যায়। আবার কেউ কেউ মেলা থেকেই ফার্নিচার ক্রয় করেন। কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার গুল্নক্শা ও রাজদর্শন হলে এবার ১৮২টি স্টলে ৩১টি প্রতিষ্ঠান নিজেদের আসবাবপত্রের পসরা নিয়ে এসেছে। আকতার ফার্নিচার লিঃ, ব্রাদার্স ফার্নিচার লিঃ, হাতিল কমপ্লেক্স, পারটেক্স ও নাভানা ছাড়াও দেশের স্বনামধন্য অন্যান্য ফার্নিচার প্রতিষ্ঠান বিশাল সব স্টলে নিজেদের আসবাবপত্র প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেছে। এর মধ্যে কিছু কিছু স্টলে ফার্নিচার সামগ্রীর পাশাপাশি কাঠের তৈরি ঘর সাজানোর সামগ্রী ও দৈনন্দিন ব্যবহারে প্রয়োজনীয় কাঠের সামগ্রীও প্রদর্শন করছে।

এমন একটি স্টল এথেনাস ফার্নিচার অ্যান্ড হোম ডেকোর। এই স্টলে নানন্দিক নকশার কাঠের তৈরি তিন পাল্লার আলমারি, অভিজাত নকশার ডিভানগুলো যেমন দর্শকের দৃষ্টি কাড়ছে একইভাবে কাঠের তৈরি তিনতলা খাবার ট্রলি এবং ড্রয়িং রুমে ব্যবহারের জন্য নকশাদার দোলনাও নিয়ে আগ্রহী ক্রেতা। স্টলটির বিক্রয় প্রতিনিধিরা জানান, তাদের তৈরি পণ্যগুলো শতভাগ সেগুন কাঠের তৈরি এবং পণ্যগুলো সহজে নষ্ট হবে না। কারণ এতে দেওয়া হচ্ছে লাইফটাইম গ্যারান্টি। এ ছাড়া মেলায় উডআর্ট-এর স্টলে সাশ্রয়ী মূল্যে ভালোমানের আসবাবপত্র বিক্রি হচ্ছে। উডআর্ট-এর বিক্রয়কর্মীরা জানান, তাদের পণ্য ক্রয়ে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ ছাড়ের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর