শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০২:৪১

শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়া সেই গৃহকর্মী গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়া সেই গৃহকর্মী গ্রেফতার

‘গৃহকর্মী বাথরুম থেকে শিশুকে নিয়ে ঘরের ভিতর ছুড়ে ফেলে দেন। এরপর শিশুটিকে টানা কয়েক দফা লাথি মারতে থাকেন।’ সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে ধরা পড়ে এ চিত্র। ছোট্ট শিশুর প্রতি এমন নির্মম আচরণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর গ্রেফতার হয়েছেন সেই গৃহকর্মী।

গত ১৪ নভেম্বর রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ভিডিওচিত্রে নির্যাতকের ভূমিকায় থাকা নারী ওই বাসারই গৃহকর্মী। বাসিন্দা মো. আল আমিন সরকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। শিশুটির মা লুৎফুন্নাহার উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। এ দম্পতির একমাত্র শিশু ছোট্ট আবদুল্লাহ আবতাই আয়াতের বয়স মাত্র দুই বছর। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই চাকরিজীবী হওয়ায় শিশু সন্তান আয়াতকে বাসায় গৃহকর্মী শাহিদা তাজনারার (৪৫) কাছে রেখে যেতেন। ওই ঘটনায় শাহজাহানপুর থানায় মামলা হলে গৃহকর্মীকে গতকাল গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শিশুটির বাবা আল আমিন সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাবুকে মারধরের বিষয়ে কোনোভাবে আমার স্ত্রী সন্দেহ হওয়ায় বাসায় সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানোর কথা বলে। সে অনুযায়ী গত ৮ নভেম্বর আমি বাসায় সিসিটিভি ক্যামেরা বসাই। কিন্তু ক্যামেরার বিষয়টি আমরা গৃহকর্মী শাহিদাকে বুঝতে দেইনি। ক্যামেরা বসানোর ৫ দিনে যা ধরা পড়েছে, সেগুলো তেমন কিছু না। কিন্তু ১৪ নভেম্বর আমি অফিসে বসে বাসার ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করছিলাম। আইপি ক্যামেরা হওয়ায় স্মার্টফোনেই লাইভ দেখা যেত। সেদিনই অফিসে বসে গৃহকর্মীর হাতে শিশুকে ভয়ংকর এ মারধরের ঘটনা চোখে পড়ে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি একজন অসহায় বাবা, যাকে দেখতে হয়েছে দুই বছরের সন্তানকে বীভৎস মারধরের দৃশ্য! এই নির্যাতনের দৃশ্য দেখেও কিছু করতে না পারার আক্ষেপে পুড়ছি আমি। বাচ্চাটা মার আর লাথির ভয়ে এতটাই ভীত হয়ে পড়েছিল যে, বাবা বলতেও ভুলে গিয়েছিল!’ ঘটনার পরদিন গত ১৫ নভেম্বর রাতে শাহজাহানপুর থানায় শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন আল আমিন সরকার।

পুলিশের সবুজবাগ জোনের সিনিয়র এসি রাশেদ হাসান জানান, গৃহকর্মীর দ্বারা শিশু নির্যাতনের ঘটনায় সিসি ক্যামেরার ফুটেজে মারধরের চিত্র পাওয়ার পর পরিবার মামলা করে। এ ঘটনায় গৃহকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর