শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ এপ্রিল, ২০২১ ২২:৫৫

চার মাসে পুলিশের তিন সোর্সকে কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

Google News

খুলনায় মাদক সিন্ডিকেটের তথ্য দেওয়ায় পুলিশের সোর্সরা টার্গেটে পরিণত হয়েছেন। গত চার মাসে নগরীতে মাদকসংক্রান্ত বিরোধে পুলিশের তিনজন সোর্স নিহত হয়েছেন। এরপরই নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। জানা যায়, সর্বশেষ ১৭ এপ্রিল রাতে নগরীর খালিশপুরে মো. লিটন (৪১) নামে এক চা বিক্রেতাকে কুপিয়ে হত্যা করে মাদক ব্যবসায়ীরা। পুলিশ জানায়, নিহত লিটন একসময় মাদক ব্যবসায় জড়িত ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি মাদক ব্যবসা ছেড়ে পুলিশকে সিন্ডিকেটের তথ্য দিতেন। এর আগে ১২ জানুয়ারি রাতে লবণচরার বান্দাবাজারে মাদক বিক্রেতাদের ছুরিকাঘাতে নিহত হয় পুলিশের আরেক সোর্স শফিকুল ইসলাম (৩৫)। ওই সময় ডিবির একজন এএসআই ও দুজন সোর্স জখম হয়।

এরপর ২৩ জানুয়ারি রাতে দিঘলিয়ার সেনহাটিতে পুলিশের সোর্স মামুন মোল্লা (২৬)-কে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মোস্তাক আহমেদ জানান, খালিশপুরের কাশিপুরের মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে পুলিশকে তথ্য দিত নিহত লিটন। এতে তার ওপর একটি পক্ষ আগে থেকেই ক্ষিপ্ত ছিল। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ১৭ এপ্রিল রাতে তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া দুই আসামি ও একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী এর মধ্যে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

এদিকে অপরাধ বিশ্লেষকরা বলছেন, পুলিশের সামনেই খুলনায় মাদকের জমজমাট ব্যবসা চলছে। পুলিশের সঙ্গে সখ্যতার সুযোগ নিয়ে সোর্সরাও জড়িয়ে পড়ছে নানা অপরাধে। মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে পুলিশের লোক পরিচয় দিয়ে মাসোহারা নেয়। আবার চুক্তি না মানলে তারাই পুলিশকে দিয়ে হয়রানি করে। অনেক সময় থানা থেকেও সোর্সের পরিচয় অপরাধীদের কাছে জানিয়ে দেওয়া হয়। এতে ঝুঁকির মধ্যে পড়ছেন সোর্সরা।

এই বিভাগের আরও খবর