শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

বিএসএফের হাতে আটক বাংলাদেশি কিশোরকে বিজিবির কাছে হস্তান্তর

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

দাদু থাকেন ভারতে, তাই তার সঙ্গে দেখা করার জন্য লুকিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশ সীমান্ত পার হয়ে চলে আসে বাংলাদেশি কিশোর। কিন্তু বিপত্তি বাধে দেশে ফেরার পথে, বাংলাদেশে প্রবেশের আগেই বিএসএফের হাতে আটক হয় ওই বাংলাদেশি কিশোর। যদিও ওই কিশোরের ভবিষ্যতের দিকটি মাথায় রেখে ‘শুভেচ্ছার নিদর্শন’ হিসেবে তাকে বিজিবির হাতে তুলে দেওয়া হয়। ১২ বছর বয়সী বাংলাদেশি ওই কিশোরের নাম মহম্মদ নয়ন আলি, বাবা সাদিরুল আলি, বাড়ি বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারায়ণপুর ডাকঘরের অধীন জোহরপুর গ্রামে। তার দাদু ইরামুল শেখ থাকেন পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার রঘুনাথগঞ্জ থানার অধীন বাজিতপুর গ্রামে। দাদুর সঙ্গে দেখা করতেই সীমান্ত টপকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টায় বাজিতপুর গ্রামে আসে নয়ন। দাদুর সঙ্গে দেখা করে দেশে ফিরে যাওয়ার সময় বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় পিরোজপুর সীমান্তে টহলরত বিএসএফ’এর ৭৮ নম্বর ব্যাটেলিয়নের সদস্যদের হাতে ধরা পড়ে নয়ন। নয়নকে জেরা করে ভারতে প্রবেশের কারণ জানতে পারে সীমান্তরক্ষী বাহিনী। পরে ‘সৌজন্যতার নিদর্শনে’র দিকে তাকিয়ে বিএসএফ’এর তরফে তাকে বিজিবি’র হাতে হস্তান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে গতকাল বিএসএফ’এর তরফে বিবৃতি দিয়ে ৭৮ নম্বর ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডিং অফিসার শ্রী বিশ্ববন্ধু জানান- ‘তদন্তে দেখা গেছে ওই কিশোর কোনো অসৎ উদ্দেশ্যে ভারতে প্রবেশ করেনি। তার দাদুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেই সে সীমান্ত অতিক্রম করেছিল। যদিও অবৈধভাবে আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রম করা অপরাধ। কিন্তু কিশোরটির ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে ও সীমান্তবর্তী মানুষের আবেগের কথা মাথায় রেখেই ‘সৌজন্যতার নিদর্শন’ স্বরূপ তাকে বিজিবির হাতে তুলে দেওয়া হয়।