বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা

বিজয়ের কাছে পাওয়া মডার্নার টিকা সিটি করপোরেশনের

রিমান্ডে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিজয়ের কাছে পাওয়া মডার্নার টিকা সিটি করপোরেশনের

রাজধানীর দক্ষিণখান থেকে গ্রেফতার বিজয় কৃষ্ণ তালুকদার পুলিশের রিমান্ডে মডার্নার টিকা পাওয়ার তথ্য জানিয়েছেন। তার দুই দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছে গতকাল।

আজ তাকে আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, ইউটিপিএসকে তিনটি ওয়ার্ডে করোনার টিকা দেওয়ার দায়িত্ব দিয়েছিল সিটি করপোরেশন। আর ইউটিপিএস দায়িত্ব দিয়েছিল তিনটি প্রতিষ্ঠানকে। তার মধ্যে তার মালিকানাধীন দরিদ্র পরিবার সেবা সংস্থাও ছিল। তিনি পেয়েছিলেন সাড়ে ৪০০ ভায়াল। সেখান থেকে অল্প কিছু সরিয়েছেন। আর ওই টিকাগুলো ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ছিল। তবে তিনি ওই টিকা পান ইউনিটি থ্রু পপুলেশন সার্ভিসেস (ইউটিপিএস) নামের একটি বেসরকারি সংস্থার কাছ থেকে। পুলিশের তদন্ত সংশ্লিষ্টরা এসব তথ্য জানিয়েছেন।

সূত্র জানায়, গত ১৮ আগস্ট রাতে দরিদ্র পরিবার সেবা ক্লিনিক নামের একটি প্রতিষ্ঠানে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে, এমন খবর পায় পুলিশ। ওই সময় সেখানে গিয়ে তারা টিকা নেওয়ার জন্য অপেক্ষারত কয়েকজনকে দেখতে পান। পরে ক্লিনিকটি থেকে পুলিশ দুই ভায়াল মডার্নার টিকা ও বেশ কিছু খালি বাক্স জব্দ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিজয় সে সময় পুলিশকে জানান, তিনি এক ডোজ টিকার বিনিময়ে ৫০০ টাকা নিচ্ছিলেন। এরপর পুলিশ তাকে আটক করে। পরে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, টিকা দেওয়া শেষে ভায়ালগুলো বাক্সসহ ফিরিয়ে দেওয়ার কথা। বিজয় কৃষ্ণ তালুকদারের কাছ থেকে পাওয়া কাগজপত্রে দেখা যাচ্ছে, তিনি ভায়ালগুলো ইউটিপিএসকে বুঝিয়ে দিয়েছেন। ইউটিপিএসও বুঝিয়ে দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনকে। তাহলে দরিদ্র পরিবার সেবা সংস্থা থেকে ভায়াল পাওয়া গেল কী করে? এমন প্রশ্নের জবাবে বিজয় কৃষ্ণ পুলিশকে বলেছেন, তিনি ইউটিপিএস থেকে পাওয়া ভায়ালের কিছু সরিয়েছেন। কিছু নষ্টও করেছেন। কাগজপত্রে সই করেছেন বিজয় কৃষ্ণ তালুকদারের স্ত্রী।