শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ টা

ফলোআপ চিকিৎসায় অনীহা করোনা আক্রান্তের পর সুস্থ রোগীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

ফলোআপ চিকিৎসায় অনীহা করোনা আক্রান্তের পর সুস্থ রোগীদের

করোনা আক্রান্তের পর সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর ৯০ শতাংশই ফলোআপ চিকিৎসার জন্য আসেন না। ফলে করোনা থেকে সেরে ওঠার পরও বিভিন্ন রোগের উপসর্গ বাসা বাঁধে অনেকের দেহে। অনেক ক্ষেত্রে তা জটিল আকার ধারণ করে। এমনটাই মনে করছেন চিকিৎসকরা।

এদিকে রংপুর বিভাগে করোনা শনাক্তের হার এক লাফে ১০ শতাংশের ওপরে উঠেছে। ফলে স্বাস্থ্য বিভাগ চিন্তিত। মহানগরের আসাদুজ্জামান নামে এক ব্যক্তি গত বছরের প্রথম দিকে করোনা আক্রান্ত হয়ে ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। আর ফলোআপ চিকিৎসা নেননি। তিনি বলেন, ‘এখনো শরীর অনেক দুর্বল। ডাক্তারের পরামর্শ নেব নেব করে নেওয়া হয়নি।’ তার মতো অনেকেই করোনা থেকে সেরে ওঠার পর ফলোআপ চিকিসার জন্য ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করছেন না। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, করোনা থেকে সেরে ওঠার পর অন্য রোগের উপসর্গগুলো বেড়ে যায়। এতে রোগীরা বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত জটিলতায় পড়েন। চিকিৎসকদের মতে করোনা থেকে সেরে ওঠার পর অন্তত একবার হলেও ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত। মোট কত শতাংশ করোনা আক্রান্ত ফলোআপ চিকিৎসা নিতে আসেননি এমন কোনো পরিসংখ্যান স্বাস্থ্য বিভাগে না থাকলেও সংশ্লিষ্টদের ধারণা, সুস্থ হওয়ার পর ৯০-৯৫ শতাংশই ফলোআপ চিকিৎসার জন্য আসছেন না। তবে করোনা আক্রান্তদের অন্য কোনো রোগ থাকলে সেসব রোগী সেই রোগের চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগে করোনা শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৮৪ শতাংশে উঠেছে। এর আগের দিন ছিল ৫ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৬ জনের পরীক্ষা করে ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত ৩ লাখ ৯ হাজার ২৮২ জনের পরীক্ষা করে ৫৫ হাজার ৮৭৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। সুস্থ হয়েছেন ৫৪ হাজার ২৫৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় কোনো মৃত্যু না থাকলেও এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১ হাজার ২৫২ জন। রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. জাকিরুল ইসলাম লেলিন বলেন, ‘করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর একবার হলেও ফলোআপ চিকিৎসা অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। এ ছাড়া যাদের অন্যান্য রোগ রয়েছে তাদের ওই রোগের চিকিৎসা গুরুত্বসহকারে করা উচিত।’ রংপুর সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগীয় প্রধান ডা. কামরুজ্জামান তাজ বলেন, ‘করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হওয়ার পর কোনো সমস্যায় পড়লে আমাদের জানালে আমরা তাদের পরামর্শ দিই। তবে অধিকাংশই রোগী সুস্থ হওয়ার পর ফলোআপ চিকিৎসা অথবা পরামর্শের জন্য আসেন না।’

সর্বশেষ খবর