শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৫১
প্রিন্ট করুন printer

ভারতে নতুন করে সাড়ে ১১ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত

অনলাইন ডেস্ক

ভারতে নতুন করে সাড়ে ১১ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত
প্রতীকী ছবি

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১১ হাজার ৬৬৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন, যা বুধবারের থেকে হাজার খানেক কম। ফলে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৭ লাখ ১ হাজার ১৯৩ জন।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ভারতে এখন পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৪৭ জন। এর মধ্যে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১২৩ জন। এই সংখ্যাটাও আগের দিনের থেকে অনেকটাই কম।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে রোগমুক্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৩০১ জন। যা দৈনিক আক্রান্তের থেকে অনেকটাই বেশি। আগের দিনের তুলনাতেও সুস্থতার সংখ্যাটা সামান্য বেশি। আপাতত মোট অ্যাকটিভ ১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৪০ জন।

এখন পর্যন্ত করোনাজয়ীর সংখ্যা ১ কোটি ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৬০৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে প্রায় সাড়ে ৭ লাখ।

ভারতে ১৪৭টি জেলায় গত এক সপ্তাহে একজনও করোনা আক্রান্তের হদিশ মেলেনি। ১৮ জেলায় করোনা হয়নি গত ১৪ দিন। এছাড়া ৬ জেলায় গত ২১ দিন একজনও ভাইরাসের কারণে মারা যাননি। ২১ জেলায় গত চার সপ্তাহে একজনও করোনা আক্রান্ত হননি।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন 

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২২:২০
প্রিন্ট করুন printer

কোভ্যাক্সের প্রথম টিকা পেল ঘানা

অনলাইন ডেস্ক

কোভ্যাক্সের প্রথম টিকা পেল ঘানা

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ ঘানা বুধবার কোভ্যাক্সের মাধ্যমে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার বানানো ৬ লাখ ডোজ টিকা পেয়েছে। করোনা প্রতিরোধে বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের টিকার প্রথম চালান পেল দেশটি। খবর বিবিসির।

জানা গেছে, মধ্যম ও নিম্ন আয়ের দেশগুলোর টিকা নিশ্চিত করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে এ কর্মসূচি। কোভ্যাক্স এ বছরের শেষ পর্যন্ত দুইশ কোটি টিকার ডোজ বিশ্বব্যাপী সরবরাহ করবে বলে আশা প্রকাশ করছে। তারই অংশ হিসেবে প্রথমে এ টিকা পেল ঘানা।

উল্লেখ্য, পশ্চিম আফ্রিকার এই দেশটিতে ৮০ হাজার ৭০০ জনেরও বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন, এর মধ্যে মারা গেছেন ৫৮০ জন। করোনা টেস্টের ঘাটতির কারণে এ পরিসংখ্যানে বাস্তব পরিস্থিতি উঠে আসেনি বলে ধারণা করা হয়।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:০৬
প্রিন্ট করুন printer

ফেনীতে ডা. সেব্রিনা ফ্লোরার করোনা ভ্যাকসিন বুথ পরিদর্শন

ফেনী প্রতিনিধি

ফেনীতে ডা. সেব্রিনা ফ্লোরার করোনা ভ্যাকসিন বুথ পরিদর্শন

স্বাস্থ্য বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও কোভিড-১৯ টিকা বিতরণ ও প্রস্তুত কমিটির মেম্বার সেক্রেটারি ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা ফেনীতে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বুথ ও স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন।

আজ বুধবার সকালের ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরার নেতৃত্বে স্বাস্থ্য বিভাগের একটি দল ফেনী জেনারেল হাসপাতাল থেকে পরিদর্শন শুরু করেন।  প্রথমে তিনি ফেনী জেনারেল হাসপাতালে স্থাপিত কিডনি ডায়ালাইসিস বিভাগ পরিদর্শন করেন।  এরপর কোভিড-১৯ টিকার জন্য স্থাপিত বুথ পরিদর্শন করেন। পরে ফুলগাজী ও পরশুরামের স্থাপিত টিকা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য বিভাগের চট্টগ্রাম বিভাগের পরিচালক ডাঃ হাসান শাহরিয়ার কবির, ফেনীর সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসেন দিগন্ত, ফেনী বিএমএর সভাপতি অধ্যাপক সাহেদুল ইসলাম কাওসার, সাধারণ সম্পাদক বিমল চন্দ দাস, ফেনী জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক আবুল খায়ের মিয়াজী প্রমুখ। 


বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৪৯
প্রিন্ট করুন printer

টিকা নিয়ে শামীম ওসমান বললেন, ‘আল্লাহর ওপর ভরসা রাখুন’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

টিকা নিয়ে শামীম ওসমান বললেন, ‘আল্লাহর ওপর ভরসা রাখুন’
টিকা নিচ্ছেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, করোনা একটি ভাইরাস। এটি আল্লাহ পাঠিয়েছে আমাদের পরীক্ষা করার জন্য। টিকা নিন। এটা ফাস্ট ট্রায়াল চলছে। তবে টিকা পরীক্ষিত। যে কোন টিকা শতভাগ সঠিক প্রক্রিয়ায় পৌঁছাতে  ১০-১২ বছর লেগে যায়। তবে ভরসা আল্লাহর ওপর রেখে টিকা দিন। আল্লাহ সকল কিছুর মালিক।

আজ বুধবার বিকাল ৩টায় নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর হাসপাতালে করোনা ভ্যাকসিন নেয়া শেষে  প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান আরও বলেন, টিকা বানানোর জ্ঞান আল্লাহর দেয়া। আল্লাহ আমাদের পরীক্ষা করতে এ রোগ দিয়েছেন যেন মানুষ বুঝতে পারে মানুষের কোনো ক্ষমতা নেই। মানুষ যাতে সৎ পথে আসে। আমরা মানুষের মধ্যে এ রোগের ক্ষেত্রে দেখেছি স্বার্থপরতা। আবার একটি বিশাল অংশ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করে গেছে। দুটি রূপই আমরা দেখেছি। এখন আমাদের বেছে নিতে হবে আমরা কোন শ্রেণিকে বেছে নেবো। সময় মতো টিকা নিন।

তিনি বলেন, আমার পরিচিত অনেকেই আছে যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে এসেও টিকা নিয়েছেন।  অন্যান্য দেশে মানুষ টাকা দিয়ে টিকা নিতে পারছে না।  এ কাজটি সম্ভব হয়েছে আমাদের সকলের প্রচেষ্টায়।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:২৭
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:১৬
প্রিন্ট করুন printer

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা শনাক্ত বেড়েছে

অনলাইন ডেস্ক

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা শনাক্ত বেড়েছে

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৩৭৯ জনে। এছাড়া নতুন করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৪২৮ জন। গতকাল এ সংখ্যা ছিল ৩৯৯। দেশে এখন পর্যস্ত মোট করোনা শনাক্ত ৫ লাখ ৪৪ হাজার ৫৪৪ জন।

করোনাভাইরাস নিয়ে ২৪ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরও ৯১১ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৭৯৮ জন।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১২:৫৭
প্রিন্ট করুন printer

ভারতে আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি

অনলাইন ডেস্ক

ভারতে আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি

ভারতে আবারও দাপট দেখাতে শুরু করেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। সংক্রমণের গ্রাফ হঠাৎ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় দেশটির পাঁচ রাজ্যকে সতর্ক থাকতে ও ভ্যাকসিন প্রক্রিয়াকে দ্রুত করতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, পাঞ্জাব, জম্মু ও কাশ্মীর এবং ছত্তিশগড়ে টিকাকরণে জোর দেওয়ার জন্য চিঠি পাঠিয়ে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। এই পাঁচ রাজ্যের প্রথমসারির যোদ্ধাদের অতি দ্রুত করোনা টিকা দিতে হবে।

তবে লক্ষণীয়ভাবে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুণে, নাগপুর, মুম্বাই, অমরাবতী, থাণে এবং আকোলা জেলাতে সংক্রমণ হার অনেকাংশে বেড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মনোহর অগ্নি। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের-ইন্দোর, ভোপাল এবং বেতুল জেলায় করোনা সংক্রমণের হার অনেকটাই বেড়েছে।
 
ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় এক নির্দেশে জানিয়েছে, যত দ্রুত সম্ভব এই দুই রাজ্যের প্রথমসারির কর্মীদের টিকাকরণের কর্মসূচি শেষ করতে হবে।
 
দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, ভারতে করোনা ভ্যাকসিনের টিকাকরণ শুরু হয়েছিল ১৬ জানুয়ারি। ইতোমধ্যে প্রথমসারির করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে ৪২ শতাংশ কর্মী ভ্যাকসিন পেয়েছেন। এখনও পর্যন্ত এক কোটি বিশ লাখ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে ৬৪ লাখ সাত হাজার স্বাস্থ্যকর্মী ও ৪১ লাখ এক হাজার প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা।

তবে অতি দ্রুত দেশটির প্রথমসারির বাকি কর্মীদের টিকাকরণের কর্মসূচি শেষ করতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর