শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:০৩
প্রিন্ট করুন printer

রংপুরে দেড়কোটি মানুষের জন্য করোনা বেড মাত্র ৭০০

নজরুল মৃধা, রংপুর

রংপুরে দেড়কোটি মানুষের জন্য করোনা বেড মাত্র ৭০০
Google News

রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় দেড় কোটি মানুষের জন্য ১২টি হাসপাতাল ও চিকিৎসা কেন্দ্রে প্রায় ৭০০ করোনা রোগীকে চিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। বিভাগের আইসিইউ বেড রয়েছে মাত্র ২৬টি। 

এর মধ্যে রংপুরে ১০টি ও দিনাজপুরে ১৬টি। বিভাগের অন্য কোন জেলায় আইসিইউ নেই। অথচ প্রতিদিনই করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। 

রংপুর স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বিভাগের ৮ জেলায় করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য ১২টি হাসপাতালে প্রায় ৭০০ বেডের ব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে রংপুরের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে রয়েছে ১০০টি শয্যা। এখানে আইসিইউ বেড রয়েছে মাত্র ১০টি। এসব বেড খালি পাওয়া দুষ্কর হয়ে পড়েছে।

এছাড়া রংপুর বক্ষ্যব্যাধি হাসপাতালে ২০ শয্যা, হারাগাছ ৩১ শয্যা হাসপাতালে করোনা রোগীর চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও সেখানে কোন আইসিইউ নেই। দিনাজপুরের এম আব্দুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫০ শয্যায় করোনার চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও সেখানে আইসিইউ রয়েছে ১৬টি। 

এছাড়া বিরলে ২৫ শয্যা ও কাহারোলে ল্যাম্প হাসপাতালে ১০ শয্যায় করোনা রোগীর চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও সেখানে কোন আইসিইউ নেই। এছাড়া কুড়িগ্রামে আধুনিক সদর হাসপাতালে ৫০ শয্যা, লালমনিরহাটের নার্সিং ইন্সটিটিউশনে ১২ শয্যা, লালমনিরহাট সরকারি হাসপাতালে ৫০ শয্যা, রেলওয়ে হাসপাতালে ২০ শয্যা, পঞ্চগড়ে চাইল্ড ওয়েল ফেয়ারে ৫০ শয্যা, ঠাকুরগাঁও টেকনিকেল স্কুল এন্ড কলেজে ১০০ শয্যা, গাইবান্ধার আনসার ট্রেনিং সেন্টারে ৮০ শয্যা ও নীলফামারী সরকারি হাসপাতালে ১০০ শয্যায় করোনার রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও ওইসব চিকিৎসা কেন্দ্র কোন আইসিইউ নেই। ফলে গুরুতর অসুস্থ রোগী আইসিইউ’র সেবা না পেয়েই মৃত্যু বরণ করার আশঙ্কা রয়েছে। 

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭৭ জনের দেহে নমুনা পরীক্ষা করে ৬৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এপর্যন্ত রংপুর বিভাগে  ১ লাখ ১৭ হাজার ৯৬৭ জনের  নমুনা পরীক্ষা করে ১৬ হাজার ৭৯৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে একজন। এ পর্যন্ত মৃত্যু বরণ করেছেন ৩১৯ জন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর