১৯ জুলাই, ২০২২ ১৫:৫৭

সাড়ে ৪ মাস পর শেবাচিমে করোনা ওয়ার্ডে একজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:

সাড়ে ৪ মাস পর শেবাচিমে করোনা ওয়ার্ডে একজনের মৃত্যু

প্রতীকী ছবি

সাড়ে ৪ মাস পর বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (শেবাচিম) করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় আক্রান্ত একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ওই রোগী (২৫) ভোলা সদর উপজেলার বাসিন্দা ছিলেন। 

এর আগে গত ৫ মার্চ শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৌরনদী উপজেলার এক পুরুষ রোগীর (৭৫) মৃত্যু হয়। 

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. এসএম মনিরুজ্জামান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, গত ১৪ জুলাই আরটি পিসিআর ল্যাবের রিপোর্টে মৃত রোগীর করোনা পজেটিভ ছিল। প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত ১৬ জুলাই বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (শেবাচিম) করোনায় ওয়ার্ডে ভর্তি হয় ওই রোগী। করোনায় কারণে নিউমোনিয়া হয়ে তার হৃদপিন্ডের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। এতে তার মৃত্যু হয়। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ শেবাচিমে করোনা ওয়ার্ড চালুর পর এ নিয়ে ৪শ’ ৪০ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। 

এদিকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের আরটি পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার আগের দিনের তুলনায় মঙ্গলবার কিছুটা কমেছে। হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডেও চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কমেছে। 

মঙ্গলবার পিসিআর ল্যাবে ৫৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১২.০৬ ভাগ। এর আগে গত সোমবার পিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ছিল ১৮.৮৬ ভাগ, রবিবার ৫.৫৫ ভাগ, শনিবার ১১.৪৭ ভাগ, শুক্রবার ২৮.৮১ ভাগ এবং গত বৃহস্পতিবার ২৫.৫৩ ভাগ করোনা শনাক্ত হয়।  

অপরদিকে মেডিকেলের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমেছে। গত সোমবার করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিল ৭ জন রোগী। বিগত ২৪ ঘন্টায় চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে ২ জন রোগী ছাড়পত্র নিয়েছেন। একই সময়ে নানা উপসর্গ নিয়ে ৩ জন রোগী করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলো ৮ জন রোগী। 

২০২০ সালের ১৭ মার্চ শেবাচিমে করোনা ওয়ার্ডে চালুর পর এ পর্যন্ত সেখানে ৭ হাজার ৭শ’ ৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬ হাজার ২শ’ ২১ জন রোগী। 

বিডি প্রতিদিন/এএম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর