শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ মার্চ, ২০১৭ ২৩:১২

জরুরি বিভাগে টাকা ছাড়া চিকিৎসা মেলে না

বোয়ালমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

বোয়ালমারী প্রতিনিধি

জরুরি বিভাগে টাকা ছাড়া চিকিৎসা মেলে না

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে টাকা ছাড়া মেলেনা চিকিৎসাসেবা। এমএলএসএস, মালী, হারবাল অ্যাসিন্ট্যান্ট (গার্ডেনার), ওটি বয় দিয়ে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছেও বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানা যায়, গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার খরসূতি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী সোলায়মানকে (১৭) আহত অবস্থায় বোয়ালমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে আনা হয়। এ সময় সেখানে কর্মরত ওটি বয় আফসার উদ্দিন, অফিস সহায়ক (এমএলএসএস) বাবলা মিয়া ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে আসা শিক্ষক আলামিনের কাছে এক হাজার টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে রোগী ফরিদপুরে রেফার্ড করা হবে বলে ভয় দেখায়। উপায়ন্তর না পেয়ে আলামিন তাদের ৭০০ টাকা দিয়ে শিক্ষার্থীর চিকিৎসা করান। টাকা নেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে ওটি বয় আফসার উদ্দিন বলেন, ‘আমি টাকা নিইনি, নিয়েছে বাবলা। বাবলার ভাষ্য, ‘ওই সময় আমার ডিউটি না থকায় আমি বাসায় ছিলাম। আফসার আমাকে ফোন করে আনে। পরে শিক্ষার্থীর ক্ষত জায়গায় চিকিৎসা দেওয়ার পর আমাকে আফসার ৩৫০ টাকা দেয়।’ ওই সময় জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডা. দেবাশীষ সাহা বলেন, ‘টাকা নেওয়ার বিষয়টি শুনেছি।’ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তাপস বিশ্বাস জানান, টাকা নেওয়ার বিষয়টি তিনি জানেন না। যদি নিয়ে থাকে টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর