শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ জুন, ২০১৯ ২৩:২৯

আঙুলে সুঁচ ঢুকিয়ে শিশু নির্যাতন

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

আঙুলে সুঁচ ঢুকিয়ে শিশু নির্যাতন

গাজীপুরের শ্রীপুরে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে আঙুলে সুঁচ ঢুকিয়ে শিশু নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতিত শিশু সাজিদ (১৩) উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের নতুন পটকা গ্রামের মৃত কামাল হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে সাতজনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেন শিশুর খালা।

প্রধান অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন ও সহযোগী সোহেলকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আনোয়ার হোসেন (৪০) একই গ্রামের মৃত রমিজ উদ্দিনের ছেলে ও সোহেল (২৪) আবুল হোসেনের ছেলে।

মামলার বিবরণ, শিশু ও স্বজনদের ভাষ্যমতে, বৃহষ্পতিবার সকাল আটটার দিকে কাজের কথা বলে শিশু সাজিদকে ডেকে নিয়ে দুটি মোবাইল চুরির সন্ধান দিতে বলে। এ ব্যাপারে শিশুটি কোনো কিছু না জানার কথা জানালেও ঘরে আটকিয়ে হাতুড়ি ও লাঠিসোটা দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি পেটানো হয়। একপর্যায়ে শিশুর হাতের আঙুলে সুঁচ ঢুকিয়ে দিলে শিশুটি চিৎকার  শুরু করে। তার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ও শিশুর অভিভাবকেরা অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেনের বাড়ি থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় স্থানীয়রা আপসরফার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়।

অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন জানায়, বুধবার রাতে তার বাড়ি থেকে দুটি মোবাইল ফোন চুরি হয়েছে। শিশু সাজিদের চুরির অভ্যাস রয়েছে। তাই তাকে আমার বাড়ীতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মারপিটের ঘটনা ঠিক নয়।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাবেদুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সাজিদের খালা শিশু নির্যাতনের ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে আনোয়ার হোসেন ও সোহেলকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্য অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। শিশুটি তার খালার বাড়িতেই বসবাস করতো।


আপনার মন্তব্য