Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মার্চ, ২০১৯ ২০:০১

প্রস্তুত সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ

নাজমুল হুদা, সাভার:

প্রস্তুত সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ

২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে উপলক্ষে জাতীয় বীরদের শ্রদ্ধা জানাতে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এদিন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ জাতীয় বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। 

মহান বিজয় দিবসকে ঘিরে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ৯ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল আকবার হোসেনের নেতৃত্বে ও তত্ত্বাবধানে ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়ছে। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনীসহ সামরিক বাহিনীর সদস্যরা তাদের চূড়ান্ত মহড়া ইতিমধ্যে শেষ করেছেন।

২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে সূচনালগ্নের পর থেকে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধ ভরে উঠবে ফুলে ফুলে। এদিন সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধ নতুন রূপে আবির্ভূত হয়। মহান এ স্বাধীনতা দিনে সর্বস্তরের মানুষ মুক্তিযুদ্ধে শহীদ লাখো শহীদের সমাধিস্থল স্মৃতিসৌধে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান। লাখো জনতা তাদের হৃদয়ের ভালোবাসা ও গভীর শ্রদ্ধায় বিনম্র চিত্তে ফুলে ফুলে ঢেকে দেবেন শহীদ বেদী। যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালনে এরই মধ্যে শেষ হয়েছে জাতীয় স্মৃতিসৌধের সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ। রং তুলির আচড়ে স্মৃতিসৌধের বিভিন্ন স্থাপনা সেজেছে আপন সাজে। হ্রদের পানি বদলিয়ে নতুন পানি দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন জাতের ফুল গাছ লাগানো হয়েছে।

আশুলিয়ার থানা যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন আহম্মেদ ভুইয়া বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, এবারের স্বাধীনতা দিবস উৎযাপনের সাজ সাজ রব বিরাজ করছে গোটা সাভারের আশুলিয়ার এলাকায়। সকল প্রস্ততি সস্পন্ন ছাড়াও ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সংস্কার ও রংতুলি কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে, এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে স্থানীয় ছাত্রলীগ, আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরাও ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে।

সাভার গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তা জাতীয় স্মৃতিসৌধের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাসহ সৌধ প্রাঙ্গণের সব আনুষ্ঠানিকতার কাজ ইতোমধ্যে শেষ করা হয়েছে। এবার ২৬ লাখ টাকা ব্যয় করে সবুজে ঘেরা ১০৮ হেক্টর জমির ওপর নির্মিত স্মৃতিসৌধ এলাকাটি গণপূর্তর কয়েকশ’ কর্মীর নিরলস পরিশ্রমে পেয়েছে এক নতুন রূপ। স্মৃতিসৌধ চত্বরের চারপাশে টবে টবে শোভা পাচ্ছে রঙিন ফুল। 

ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে উপলক্ষে স্মৃতিসৌধের আশে নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি এবং পুলিশ ওয়াজ টাওয়ার বসানো হয়েছে। এছাড়া যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমিনবাজার থেকে স্মৃতিসৌধ পর্যন্ত কঠোর নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। এবং জাতীয় স্মৃতিসৌধ এলাকার আইন-শৃঙ্খলা রায়ও নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। গড়ে তোলা হয়েছে চার-স্তরের নিরাপত্তা বলয়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা জানানোর পর সকাল পৌনে ৭টায় জাতীয় স্মৃতিসৌধ সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। এ লক্ষ্যে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাসহ গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। 

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য