Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ মে, ২০১৯ ১৬:০৫

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন অংশে সরকারি জায়গার ওপর নির্মিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে টাঙ্গাইলের সড়ক ও জনপদ বিভাগ। সোমবার দুপুরে মহসড়কে মির্জাপুর উপজেলার জামুর্কি এলাকায় বেশ কয়েকটি ভবন ছাড়াও পাকা ও আধা পাকা স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলা হয়। 

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মঈনুল হক উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্বে দেন।  

এ সময় মহাসড়কে জামুর্কি এলাকায় একটি তিনতলা ভবন, দোতলা ভবন, দুটি আধাপাকা ও বেশ কয়েকটি টিন সেড ঘর ভেঙে ফেলা হয়। এর আগে সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে মাইকিং করে স্থাপনাগুলো সরিয়ে নেয়ার জন্যে বলা হয়েছিল।  
তবে ক্ষতিগ্রস্থদের অভিযোগ, সওজ স্থাপনা সরিয়ে নিতে কোন সময় দেয়নি। উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার আগের দিন রাতে এ ব্যপারে তাদরকে জানানো হয়।

এ ব্যপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপ প্রকল্প ব্যবস্থাপক নওয়াজিশ রহমান জানান, ঢাকা-চন্দ্রা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের কাজ শুরু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায়  ও মহাসড়কের উন্নয়ন কাজের স্বার্থে সরকারি জমিতে স্থাপনা ভেঙে ফেলা হচ্ছে। 

এদিকে টাঙ্গাইল শহরের যানজট নিরসন ও জনসাধারণ দুর্ভোগ কমাতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। গত রবিবার দুপুরে সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুখময় সরকার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুনের নেতৃত্বে শহরের কুমুদিনী কলেজ গেট, সুপারি বাগান রোড ও পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযানা পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলবে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুখময় সরকার বলেন, জনসাধারণের দুর্ভোগ লাঘব ও শহরের যানজট নিরসনের লক্ষ্যে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের আগে একাধিকবার মাইকিংসহ পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এ কারণে প্রায় ৯০ ভাগ অবৈধ স্থাপনা নিজেরাই সরিয়ে নিয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য