Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মে, ২০১৯ ১৫:৫৬
আপডেট : ২৪ মে, ২০১৯ ২১:৩৪

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় স্ত্রীকে 'নকল' দিতে গিয়ে শ্রীঘরে পুলিশ কর্মকর্তা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় স্ত্রীকে 'নকল' দিতে গিয়ে শ্রীঘরে পুলিশ কর্মকর্তা

পটুয়াখালীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় নকল সরবরাহের অভিযোগে পুলিশের উপ সহকারী পরিদর্শক (এএসআই) মাহবুবুর রহমানকে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

শুক্রবার পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে শহরের রশিদ কিশালয় বিদ্যা নিকেতন কেন্দ্রে অনধিকার প্রবেশ করে তার স্ত্রীকে নকল সরবরাহকালে হাতে নাতে ধরা পড়েন তিনি। পরীক্ষা শেষে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালে শহরের রশিদ কিশালয় বিদ্যানিকেতন কেন্দ্রে সদর সার্কেল পুলিশ সুপার কার্যালয়ে কর্মরত উপ সহকারী পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান তার স্ত্রীকে নকল সরবরাহ করতে যান। এ সময় ওই কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা বিষয়টি দেখে ফেলেন। পরে তার কাছ থেকে উত্তরপত্র (নকল) উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

ঘটনাস্থলে একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত থাকলেও এ বিষয়ে কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি। পরে মোবাইল ফোনেও তাদের পাওয়া যায়নি।

পটুয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুল হাফিজ জানান, শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা। নকল সরবরাহের অপরাধে এএসআই মাহবুবুর রহমানকে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা। পরবর্তী পরীক্ষায়ও এভাবে নজরদারি অব্যাহত থাকবে।

বিডি-প্রতিদিন/২৪ মে, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য